ভারতে ধর্ষণের দায়ে বাংলাদেশি যুবকের যাবজ্জীবন

প্রতিবেদক : ল'ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ ডটকম
প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর, ২০১৭ ৮:০৪ অপরাহ্ণ

ভারতের এক বৃদ্ধ নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে নজরুল ইসলাম নামে এক বাংলাদেশিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৫ সালে পশ্চিমবঙ্গের রানাঘাট এলাকায় এক সন্ন্যাসিনীর বাড়িতে হামলা চালায় নজরুলসহ ছয়জন যুবক। এসময় তাকে ধর্ষণ করে এবং লুটপাট করে তারা।

সেই অভিযোগেই বুধবার কলকাতা নগর দায়রা আদালতের দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা হাকিম কুমকুম সিনহা এই সাজা ঘোষণা করেন। জড়িত বাকি পাঁচজনকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। আর হামলায় সহায়তা করার জন্য একজনকে সাত বছরের সাজা দেয় আদালত।

৭১ বছর বয়সী ওই সন্ন্যাসিনী যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়ার পর দেশজুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়। বিচারক কুমকুম সিনহা বলেন, ‘বৃদ্ধা ওই নারীর সঙ্গে যা হয়েছে তা পশ্চিবঙ্গের সংস্কৃতির সঙ্গে যায় না। এখানে মাদার তেরেসা অসহায়দের সাহায্য করেছেন।’

ওই সন্ন্যাসী পরে কনভেন্ট অব জিসাস এন্ড ম্যারিতে চিকিৎসা নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে চলে যান।

২০১৫ সালের ১৪ মার্চ মধ্যরাতে রাতে পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানাঘাটে ‘কনভেন্ট অফ জেসাস এন্ড মেরি’ নামে ওই স্কুলে ডাকাতি ও ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছিল। নগদ অর্থের পাশাপাশি ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেটর, ব্যাগ ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসও চুরি যায়। ওই ঘটনায় রানাঘাটের গাংনাপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। তদন্তে নেমে রাজ্য পুলিশের সিআইডি অভিযুক্ত সাতজনের মধ্যে ছয় জনকে আটক করে।

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক/লইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ ডটকম