ঢাকা || শুক্রবার , ১৯শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং || ৬ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ || ২রা জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

‘তিন তালাক’ বলে বিবাহবিচ্ছেদ ফৌজদারি অপরাধ: লোকসভায় বিল পাস

মুসলিম নারীদের ‘তিন তালাক’ বলেই বিবাহবিচ্ছেদ ঘটানোর আইনটি বাতিলের প্রস্তাব ভারতের লোকসভায় পাস হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে বিলটি পাস হয়। এখন বিলটি যাবে রাজ্যসভায়। রাজ্যসভায় আগামী সোমবার বা মঙ্গলবার বিলটি উঠতে পারে।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, ভারতের সংসদে ‘তিন তালাক’ বিল পাস হয়েছে। বিলে তিন তালাক দিয়ে তাৎক্ষণিক বিবাহবিচ্ছেদকে অপরাধ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। বিলে বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তি স্ত্রীকে ‘তিন তালাক’ বলে বিবাহবিচ্ছেদ ঘটাতে চাইলে তা ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে। ভারতের কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ বৃহস্পতিবার দেশটির পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভায় বিলটি উত্থাপন করেন। এ সময় আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আজ (বৃহস্পতিবার) একটি ঐতিহাসিক দিন। আমরা আজ ইতিহাস গড়তে চলেছি।’

আইনমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, নারী-পুরুষের সমতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ‘তিন তালাক’ বিল পাসের উদ্যোগ নেওয়া হয়। বিলে বলা হয়েছে, তিন তালাক বলে বা লিখে তাৎক্ষণিক বিবাহবিচ্ছেদ একটি অজামিনযোগ্য অপরাধ। এ অপরাধের জন্য তিন বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। শুধু তা-ই নয়, ভুক্তভোগী নারী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গিয়ে সন্তান নিজের হেফাজতে রাখার এবং ‘জীবন নির্বাহের খরচ’ দাবি করতে পারবেন ওই ব্যক্তির কাছে। বিলটি আইনে পরিণত হলে ভারতনিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর বাদে দেশটির সব রাজ্যে তা বলবৎ হবে।

লোকসভায় তিন তালাক বিল পাশের খবরে অন্দরমহলে মিষ্টিমুখ। বৃহস্পতিবার লখনউয়ে।

রাষ্ট্রীয় জনতা দল, অল ইন্ডিয়া মজলিশ-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (এআইএমআইএম), বিজু জনতা দল (বিজেডি), তৃণমূল ইন্ডিয়া, অল ইন্ডিয়া মুসলিম লিগসহ বিভিন্ন দলের পক্ষ থেকে এই বিলের বিরোধিতা করা হয়েছে। বিরোধীদের দাবি, এতে করে সংবিধানের মাধ্যমে যে মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে, তা লঙ্ঘিত হবে।