বিদায়ী বছরের আলোচিত আইন-নীতিমালা

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১১:৩৫ পূর্বাহ্ণ

সময়ের নিয়মে শেষ হচ্ছে আরও একটি বছর। চলে যাওয়া সময়ের সব ঘটনার স্থান হয় স্মৃতির খাতায়। ২০১৭ সালে মন্ত্রিসভা বৈঠকে অনেক আইন ও নীতিমালা অনুমোদন পেয়েছে। এরমধ্যে কতগুলো আইন ও নীতিমালা ছিল নানান কারণে আলোচিত।

আলোচিত আইন-নীতিমালা

এ বছরের ২৭ মার্চ সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে মোটরযান চালকদের ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি করতে বিশিষ্টজনদের দাবি থাকলেও তা অষ্টম শ্রেণি রেখেই ‘সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৭’ এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এছাড়া নানা ধরনের অনিয়মের জন্য এই আইনে শাস্তির পরিমাণও বাড়ানো হয়েছে।

৩১ জুলাই বিদ্যুৎ স্থাপনায় নাশকতার জন্য সর্বোচ্চ ১০ বছরের জেল বা ১০ কোটি টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডের বিধান রেখে ‘বিদ্যুৎ আইন, ২০১৭’ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।

গত ২৭ জুলাই অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সংযোজনে নিকটাত্মীয়ের পরিধি বাড়িয়ে ‘মানবদেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সংযোজন (সংশোধন) আইন, ২০১৭’ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এই আইনানুযায়ী, সরকারের অনুমতি ছাড়া কোনো হাসপাতাল মানবদেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সংযোজন করতে পারবে না।

অন্যান্য গণমাধ্যমের মতো অনলাইন গণমাধ্যমগুলোকে সম্প্রচার কমিশনের কাছ থেকে নিবন্ধন নেয়ার বিধান রেখে ১৯ জুন ‘জাতীয় অনলাইন নীতিমালা, ২০১৭’ অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

মন্ত্রিসভা শাস্তি বাড়িয়ে ‘আইন-শৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুতবিচার)(সংশোধন) আইন, ২০১৭’ এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দেয় ৫ জুন।

১৫ মে সেনানিবাস (ক্যান্টনমেন্ট) এলাকায় মলমূত্র ত্যাগ, মাতলামী ও ভিক্ষাবৃত্তি করলে ২০ হাজার টাকা জরিমানার বিধান রেখে ‘সেনানিবাস আইন, ২০১৭’ খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

বেসরকারি ব্যাংকে একই পরিবারের দুইজনের পরিবর্তে চারজন সদস্যকে পরিচালক করার বিধান রেখে ‘ব্যাংক কোম্পানি (সংশোধন) আইন ২০১৭’ এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এই খসড়াটি অনুমোদন দেয়া হয় ৮ মে।

গত ৩ এপ্রিল ‘জাতীয় চলচ্চিত্র নীতিমালা-২০১৭’ অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এই নীতিমালা অনুযায়ী, চলচ্চিত্রে সরাসরি কোনো ধর্ষণের দৃশ্য দেখানো যাবে না। এছাড়া অপরাধীদের কার্যকলাপের কৌশল প্রদর্শন যা অপরাধের ক্ষেত্রে নতুন পদ্ধতির প্রবর্তন ও মাত্রা আনতে সহায়ক হতে পারে এমন দৃশ্য পরিহার করতে হবে।

দেশের যে কোনো স্থানে উন্নয়ন কাজে ভূমি ব্যবহারে সরকারের ছাড়পত্র নিতে হবে। এমন বিধান রেখে গত ২০ মার্চ ‘নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা আইন, ২০১৭’ এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

একই দিন মন্ত্রিসভার বৈঠকে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর বর্বরোচিত ও নৃশংস হত্যাকাণ্ডের জন্য ২৫ মার্চ ‘গণহত্যা দিবস’ পালনের প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়।

বিমান পরিচালনায় বাধা দিলে মৃত্যুদণ্ড বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং সর্বোচ্চ ৫ কোটি টাকা জরিমানার বিধান রেখে ১৩ ফেব্রুয়ারি ‘বেসামরিক বিমান চলাচল আইন, ২০১৭’ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।

চলতি বছরের ৩০ জানুয়ারি যৌতুকের জন্য মারাত্মক যখম করলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিধান রেখে ‘যৌতুক নিরোধ আইন, ২০১৭’ এর খসড়া মন্ত্রিসভা বৈঠকে নীতিগত অনুমোদন পায়।

নিজস্ব প্রতিনিধি/ল’ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ ডটকম