ঢাকা || শুক্রবার , ১৯শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং || ৬ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ || ২রা জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

নীলস আয়োজিত আইন শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার সম্ভাবনা বিষয়ক কর্মশালা সম্পন্ন

আইনের শিক্ষার্থীদের দ্বারা পরিচালিত আন্তর্জাতিক সংগঠন দ্যা নেটওয়ার্ক ফর ইন্টারন্যাশনাল ল স্টুডেন্টস্ (নীলস্) এর বাংলাদেশ চ্যাপটার এর আয়োজনে এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সহযোগিতায় এ. কে. খান আইন অনুষদ অডিটরিয়ামে “ক্যারিয়ার অপরচুনিটি: ওয়ে টু থ্রাইভিং লিগ্যাল ইন্ডাস্ট্রি” শিরোনামে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আইনের শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার সম্ভাবনা বিষয়ক ঐতিহাসিক ও বৃহত্তম কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয় গত ৫ জানুয়ারি শুক্রবার। সারা দেশ থেকে ২৫ টির ও অধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০০র অধিক বাছাইকৃত আইনের শিক্ষার্থী উক্ত কর্মশালায় স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহন করে।

কর্মশালার কার্যক্রম শুরু হয় নীলস্ বাংলাদেশ চ্যাপটারের প্রেসিডেন্ট নাসরিন সুলতানা’র শুভেচ্ছা বক্তব্যের মাধ্যমে। তিনি তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে প্রতিষ্ঠার পর থেকে এখন পর্যন্ত নীলস্ কর্তৃক আয়োজিত বিভিন্ন কার্যক্রমের চিত্র তুলে ধরেন এবং নীলসের ভবিষ্যত উদ্দেশ্য এবং কার্যক্রম সম্পর্কে কথা বলেন।

কর্মশালার মূল এবং প্রথম ভাগের কার্যক্রম শুরু হয় আমন্ত্রিত প্রধান আলোচকগণের প্রাণবন্ত সেশান পরিচালনার মাধ্যমে। আমন্ত্রিত বক্তা এবং আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ (অবসরপ্রাপ্ত) মোঃ মাসদার হোসেন, মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব, চ্যানেল ২৪ এর নিউজ প্রেজেন্টার এবং বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের অ্যাডভোকেট মন্জুর আল মতিন এবং চবি আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাঈদ আহসান খালিদ।

আমন্ত্রিত আলোচকগণ একজন আইনের শিক্ষার্থীদের জন্য অপেক্ষমান অসংখ্য সুযোগ এবং অপার সম্ভাবনাময় ক্যারিয়ার বিষয়ক তথ্যাদি অত্যন্ত সূচারু এবং সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেন। একই সাথে সম্ভাবনাগুলো ছুঁতে করণীয় কার্য সম্পর্কে দিকনির্দেশনা প্রদান করেন।

কর্মশালার দ্বিতীয় ভাগে আইন পড়ে দেশের সর্বোচ্চ মর্যাদাসম্পন্ন বিভিন্ন পদে থাকা বিশেষভাবে আমন্ত্রিত প্যানেল বক্তাগণ সংক্ষিপ্তভাবে আইন ক্যারিয়ার বিষয়ে নিজ নিজ অভিজ্ঞতার আলোকে বক্তব্য উপস্থাপন করেন। প্যানেল বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন আইন মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মাসুমা জামান, অর্থ মন্ত্রণালয়ের উপ সচিব তনিমা তাসনিম, বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক (আইন) জাহেদ হাসান, হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের ইমিগ্রেশান ইন-চার্জ, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মনছুর আলম কাদেরী, মহানগর হাকিম (চট্টগ্রাম) মো: আল ইমরান খান, জ্যাগ ব্রাঞ্চ, বাংলাদেশ নেভীর লেফট্যানেন্ট ফারুকুল ইসলাম এবং বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের এ্যাডভোকেট ব্যারিস্টার সোহান খান এবং মোকাররামুস সাকলান।

প্যানেল বক্তাগণের সংক্ষিপ্ত বক্তব্য শেষে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের প্রশ্ন করার সুযোগ দেয়া হয়। উৎসুক জিজ্ঞাসু আইনের শিক্ষার্থীরা নিজেদের প্রশ্ন উপস্থাপন করে এবং বক্তাগণ প্রয়োজনীয় তথ্যসমৃদ্ধ উত্তর প্রদান করেন।

আইন ক্যারিয়ার বিষয়ক এই বিশাল কর্মশালার উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন চবি আইন অনুষদের ডিন প্রফেসর এবিএম আবু নোমান, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রখ্যাত সমাজবিজ্ঞানী প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমি আইন বিভাগের সভাপতি ক্রিশ্চিন রিচার্ডসন এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ (অবসরপ্রাপ্ত) মোঃ মাসদার হোসেন। অতিথিগণ একজন আইনের শিক্ষার্থী হিসেবে প্রত্যেককে সৎ, সাহসী এবং কর্মঠ হওয়ার আহ্বান জানান।

দিনব্যাপী কর্মশালার পারফর্মেন্স বিবেচনা করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তৌহিদা মনিকে ‘বেস্ট পারফর্মার অব দ্যা ওয়ার্কশপ’ ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য যে, দ্যা নেটওয়ার্ক ফর ইন্টারন্যাশনাল ল স্টুডেন্টস (নীলস্) ৬টি মহাদেশের ২৬টি দেশে আন্তর্জাতিকভাবে আইনের শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন কর্মশালা, প্রতিযোগিতা, ডেলিগেশান প্রোগ্রাম, রেসিডেন্শিয়াল স্কুল প্রোগ্রাম, আইনি সহায়তামূলক কার্যক্রম এবং আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আয়োজন করার মাধ্যমে আইন শিক্ষায় অবদান রেখে থাকে।