ঢাকা , ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং , ৫ই আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » পুলিশের গুলিতে নিহত হওয়ার ক্ষতিপূরণ ৩৪০ টাকা!

পুলিশের গুলিতে নিহত হওয়ার ক্ষতিপূরণ ৩৪০ টাকা!

প্রতীকী ছবি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশ কর্মকর্তার গুলিতে নিহত এক ব্যক্তির পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে দেওয়া হয়েছে ৪ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশি টাকায় এর পরিমাণ ৩শ’ ৪০ টাকা। বেআইনী মৃত্যুর কারণে ঐ পরিবারকে এই ক্ষতিপূরণ দেয় যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালত। খবর বিবিসির।

২০১৪ সালে ফ্লোরিডার সেন্ট লুসি কাউন্টিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন গ্রেগরি ভন হিল (৪০)। নিজ বাসার গ্যারেজে সেখানকার পুলিশের ডেপুটি শেরিফ ক্রিস্টোফার নিউম্যানের গুলিতে নিহত হন তিনি। হিলের এক প্রতিবেশীর বিশৃংখলার নালিশে সেখানে তদন্তে গিয়েছিলেন ঐ পুলিশ কর্মকর্তা।

মামলার তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, গ্যারেজের মধ্যে মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন গ্রেগরি ভন হিল। পুলিশ গ্যারেজের বাইরে থেকে তাকে নিবৃত করার চেষ্টা করেও পারেনি। এক পর্যায়ে পুলিশ গুলি চালালে নিহত হন হিল। সেসময় হিলের পাশে একটি গুলিবিহীন পিস্তলও পরে থাকতে দেখা যায়। তবে সেই পিস্তলটি হিলের হাতে ছিল কী না তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এই মামলার রায়ে জুরিরা উল্লেখ করেন, ডেপুটি শেরিফ যথেষ্ট বল প্রয়োগ করেননি এবং হিল তার মৃত্যুর জন্য নিজেই দায়ী, কারণ সে ছিল তখন মাতাল।

একজন বিচারক জুরিদের সিদ্ধান্ত নিতে বলেন যে, যদি হিলের সাংবিধানিক অধিকার ক্ষুণ্ণ হয়, তবে তার পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। এর কয়েক ঘণ্টা পরই জুরি বোর্ড হিলের মাকে এক ডলার ও তিন সন্তানকে তিন ডলার দেয়।

তবে এই রায়কে প্রহসন বলছে গ্রেগরের স্বজনেরা। নিহতের বাগদত্তা মনিক ডেভিস নিউ ইয়র্ক টাইমসকে বলেন, “এটা হৃদয় বিদারক। অনেক প্রশ্নের উত্তর এখনো বাকি আছে যা আমি জিজ্ঞেস করতে চাই”।

আর গ্রেগরের পারিবারিক আইনজীবী জন ফিলিপস বলেন, “আমার মনে হয় তারা এই মামলাকে ‘অপমান’ করতে চাচ্ছে। মাত্র ১ ডলারের জন্য আমরা কেন সেখানে যাব? এটা দুঃখজনক”।

তবে আইনজীবী জন ফিলিপ নিহত হিলের পরিবারের জন্য অর্থ সংগ্রহের ব্যবস্থা করেছেন। ইতোমধ্যে ৭ হাজার ডলার সংগ্রহ করেছেন তিনি।

কোর্ট বলছে, ক্রিস্টোফার গ্রেগর বিরুদ্ধে প্রয়োজনের চেয়ে বেশি বল প্রয়োগ করেনি। আর ফ্লোরিডার শেরিফ ডিপার্টমেন্ট থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, “ডেপুটি নিউম্যান খুবই কঠিন পরিস্থিতিতে ছিলেন। তাঁর নিজের ও তাঁর দলের নিরাপত্তাসহ জনগণের নিরাপত্তা রক্ষায় যা করা সম্ভব ছিল তাঁর সর্বোচ্চটাই করেছেন তিনি”।