মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের নতুন বিচারপতি কাভানগ

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ১০ জুলাই, ২০১৮ ১২:০৬ অপরাহ্ণ

সুপ্রিম কোর্টের নতুন বিচারপতি হিসেবে ফেডারেল আপিল কোর্টের বিচারপতি ব্রেট কাভানগকে মনোনয়ন দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কাভানগকে সুপ্রিম কোর্ট থেকে অবসর নেওয়া বিচারপতি অ্যান্থনি কেনেডির স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে। হোয়াইট হাউস থেকে এক ঘোষণায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নতুন বিচারপতির নাম ঘোষণা করেন।

সোমবার (৯ জুলাই) রাত ৯টার দিকে হোয়াইট হাউসের ইস্ট রুম থেকে মনোনয়ন পাওয়া বিচারপতির নাম ঘোষণা করা হয়।

কলম্বিয়ার আপিল কোর্টের এই বিচারপতি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের সাবেক উপদেষ্টা ছিলেন। স্থানীয় সময় সোমবার রাতে নতুন বিচারপতি হিসেবে তার নাম ঘোষণা করা হয়।

এর আগে কনজারভেটিভদের প্রস্তাবিত ২৫ জনের তালিকা থেকে নতুন বিচারপতি নিয়োগ দিতে গত সোমবার ও মঙ্গলবার সাক্ষাৎকার নেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

সর্বোচ্চ মার্কিন আদালত সুপ্রিম কোর্ট একজন প্রধান বিচারপতি ও আটজন বিচারপতি নিয়ে গঠিত হয়। প্রেসিডেন্ট মনোনীত বিচারপতিদের নিয়োগ দেয় সিনেট। একবার নিয়োগ দেওয়ার পর পদত্যাগ, অবসর বা অভিশংসন ছাড়া ওই বিচারপতিরা আমৃত্যু দায়িত্ব পালন করতে পারেন। সম্প্রতি বিচারপতি অ্যান্থনি কেনেডি অবসরে যাওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর নতুন বিচারপতি নিয়োগের পরিস্থিতি তৈরি হয়।

৫৩ বছর বয়সী ব্রেট কাভানগকে বেছে নেওয়ার মাধ্যমে সুপ্রিম কোর্ট বিচারপতিদের মধ্যে আবারও রক্ষণশীলরা সংখ্যাগরিষ্ঠ হয়ে উঠলো। আর প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনের প্রথম দেড় বছরের মধ্যে তিনি দেশের সর্বোচ্চ আদালতে আজীবনের জন্য দুইজনকে নিয়োগ দিলেন।

কাভানগকে এখন সিনেটের অনুমোদনের জন্যও আরেকবার ভয়ানক লড়াই করতে হবে। কারণ সেখানে রিপাবলিকানদের খুব অল্প ব্যবধানে সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। আর সেখানে অনুমোদন পেলেই আজীবনের জন্য সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতি থাকবেন তিনি। এর আগে গত ২৭ জুন অ্যান্থনি কেনেডি ৮১ বছর বয়সে অবসরের ঘোষণা দেন।

মনোনয়ন পাওয়ার পর সোমবার রাতে ইস্ট রুমে এক ঘোষণায় কাভানগ (৫৩) বলেন, প্রেসিডেন্ট আপনাকে ধন্যবাদ। এই প্রক্রিয়াতে আমি আপনার হাত ধরে মার্কিন বিচার বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছি। সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হিসেবে মনোনয়ন দিতে এর আগে কোনো প্রেসিডেন্ট এভাবে এত লোকজনের সঙ্গে বিস্তৃতভাবে আলোচনা করেননি। আমি আপনার প্রতি কৃতজ্ঞ।