রাজশাহীতে চকলেট দিলো পুলিশ, ফুল দিলো শিক্ষার্থীরা

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ৪ আগস্ট, ২০১৮ ৫:৪৭ অপরাহ্ণ

নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাজশাহীতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মধ্যে সম্প্রীতির দৃশ্য সবাইকে চমকে দিয়েছে। শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশের নিরাপত্তা দেওয়া এবং সহমত পেয়ে কর্মসূচি শেষে শিক্ষার্থীরা ঘরে ফিরে গেছে। যাওয়ার আগে শিক্ষার্থীরা পুলিশকে ফুল দিয়ে সেলফি তোলে। পুলিশও শিক্ষার্থীদের চকলেট দেয়।

আজ শনিবার (৪ আগস্ট) নগরের সাহেববাজার জিরো পয়েন্টে এ ঘটনা ঘটে।

সকাল ১০টা থেকে নগরের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা সাহেববাজার এলাকায় বড় মসজিদের সামনে জড়ো হতে থাকে। এ সময় নিরাপদ সড়কের দাবিতে তারা নানা স্লোগান দেয়। পরে তারা সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত গায়। এ সময় পুলিশ সদস্যরা তাদের চারপাশ থেকে ঘিরে রেখে নিরাপত্তা দেয়।

বেলা সাড়ে ১১টার পর নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমান উল্লাহ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বক্তব্য দেন। তিনি বলেন, ‘আমাদেরও সন্তান আছে। তাদের ভালোবাসি। তাই আমরাও তোমাদের দাবির সঙ্গে একমত। তোমরা নিরাপত্তা চেয়েছ, আমরা দিয়েছি। তোমাদের কর্মসূচি সবাই দেখেছে, জেনেছে। এখন তোমরা ঘরে ফিরে যাও। পড়ার টেবিলে বসো।’

শিক্ষার্থীরা তখন ওসির কাছে আরও ১৫ মিনিট সময় চায়। ওসি রাজি হন। এরপর দুপুর ১২টার দিকে শিক্ষার্থীরা কর্মসূচি শেষ করে ঘরে ফিরে যায়। এর আগে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে সহযোগিতা করায় তারা ওসি আমান উল্লাহসহ দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের ফুল উপহার দেয়। পুলিশের কয়েকজন কর্মকর্তাকেও এ সময় শিক্ষার্থী ও তাদের ব্যানারের সঙ্গে সেলফি তুলতে দেখা যায়।

ওসি আমান উল্লাহ বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে আমরা বাচ্চাদের সহযোগিতা করেছি। তাই কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। খুশি হয়ে তারা আমাদের ফুল দিয়েছে। আজকের মতো তারা ঘরে ফিরেছে। তবে আগামীকাল তারা আবার আসবে। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করা হলে সব সময় তাদের সহযোগিতা করা হবে।’

এদিকে শুক্রবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করে রাজশাহী সড়ক পরিবহন গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মুনজুর রহমান পিটার ঘোষণা দিয়েছিলেন, শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নামলে দিনে বাস চলাচল বন্ধ রাখা হবে। সে অনুযায়ী এ দিন রাজশাহী থেকে কোনো বাস ছেড়ে যায়নি বা রাজশাহী আসেনি।