ঢাকা , ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং , ৬ই আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
প্রচ্ছদ » আদালত প্রাঙ্গণ » অবসরে যাচ্ছেন হাইকোর্টের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি দস্তগীর হোসেন

অবসরে যাচ্ছেন হাইকোর্টের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি দস্তগীর হোসেন

বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালত

আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর অবসরে যাচ্ছেন হাইকোর্ট বিভাগের সবচেয়ে জ্যেষ্ঠ বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন। ওইদিন পর্যন্ত অবকাশকালীন ছুটির কারণে এদিন সুপ্রিমকোর্ট বন্ধ থাকায় গত মঙ্গলবার তাকে বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়।

বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেনের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে এ সংবর্ধনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সংবিধান অনুযায়ী একজন বিচারপতি ৬৭ বছর বয়স পর্যন্ত স্বপদে বহাল থাকতে পারেন। এ হিসেবে আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেনের বয়স ৬৭ বছর পূর্ণ হবে।

সংবর্ধনায় অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয় থেকে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এবং সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির পক্ষ থেকে সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. জয়নুল আবেদীন সংবর্ধনায় বক্তব্য দেন। জবাবে বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেনও আবেগঘন বক্তব্য দেন।

এ সময় ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন, ব্যারিস্টার ফিদা এম কামাল, বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুনসহ শত শত আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন।

বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ১৯৫১ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মরহুম বিচারপতি সৈয়দ এ. বি. মাহমুদ হোসেন ছিলেন বাংলাদেশের দ্বিতীয় প্রধান বিচারপতি। মাতা মরহুম সুফিয়া বেগম।

বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ১৯৬৮ সালে সেন্ট গ্রেগরি স্কুল থেকে এসএসসি, ১৯৭০ সালে ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি, ১৯৭৬ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ (জুরিসপুডেন্স) ডিগ্রি অর্জন করেন।

এরপর ১৯৭৭ সালের ১০ মার্চ আইনজীবী হিসেবে তার পেশাগত জীবন শুরু করেন। এরপর ১৯৭৯ সালের ১০ মার্চ হাইকোর্ট বিভাগে এবং ১৯৮৪ সালের ২ আগস্ট আপিল বিভাগে আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। ২০০১ সালের ৩ জুলাই তাকে হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।

২০০৩ সালের ৩ জুলাই হাইকার্ট বিভাগে স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। সেই থেকে তিনি হাইকোর্ট বিভাগেই বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনিই এখন হাইকোর্টের সবচেয়ে জ্যেষ্ঠ বিচারপতি।