ঢাকা , ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং , ৬ই আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » ভারতে হোয়াটস অ্যাপে মামলার শুনানি, ক্ষুব্ধ সুপ্রিম কোর্ট

ভারতে হোয়াটস অ্যাপে মামলার শুনানি, ক্ষুব্ধ সুপ্রিম কোর্ট

মেসেজ পাঠানোর অ্যাপ ‘হোয়াটস অ্যাপ’-এ বিচারক ফৌজদারি মামলার আদেশ দিয়েছেন, এমন কথা উদ্ভট শোনালেও ভারতে ঠিক তাই ঘটেছে বলে জানিয়েছে দেশটির হিন্দুস্তান টাইমস পত্রিকা।

টাইমস জানায়, অদ্ভুত এই মামলাটি সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত গড়ানোর পর সর্বোচ্চ আদালত প্রথমে বুঝতে পারেনি ভারতের কোনো কোর্টে এমন ‘তামাশা’ কী করে ঘটল।

ঝাড়খণ্ডের একজন সাবেক মন্ত্রী ও তার এমএলএ স্ত্রী ওই মামলায় অভিযুক্ত।

হাজারিবাগের নিম্ন আদালতের একজন বিচারক হোয়াটস অ্যাপ কলের মাধ্যমে এদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের নির্দেশ দেন।

ঝাড়খণ্ডের সাবেক মন্ত্রী যোগেন্দ্র সাও ও তার স্ত্রী নির্মলা দেবি ২০১৬ সালে একটি দাঙ্গার মামলায় অভিযুক্ত। গত বছর সর্বোচ্চ আদালত তাদেরকে জামিন দেয় এবং ভোপালেই থাকার এবং আদালতের কাজ ছাড়া ঝাড়খণ্ডে প্রবেশ না করার নির্দেশ দেয়।

অভিযুক্তরা সুপ্রিম কোর্টকে জানান, তাদের আপত্তি সত্ত্বেও এবছরের ১৯ এপ্রিল নিম্ন আদালতের বিচারক একটি হোয়াটস অ্যাপ কলের মাধ্যমে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের নির্দেশ দেন।

জাস্টিস এসএ ববডি এবং জাস্টিস এল এন রাওয়ের বেঞ্চ এই অভিযোগ গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে বলেন, ‘ঝাড়খণ্ডে কী হচ্ছে? এই পদ্ধতি মেনে নেয়া যায় না। আমরা বিচারকাজের প্রশাসনের বদনাম করতে পারি না।’

‘আমরা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে চালানো একটি বিচারের প্রক্রিয়ায় এই অবস্থায় পৌঁছেছি। এটা হতে পারে না। কোন ধরনের বিচার এটা? এটা কোনো ধরনের মস্করা নাকি?’ ঝাড়খণ্ড রাজ্যের পক্ষে উপস্থিত আইনজীবীর কাছে জানতে চায় বিচারকদের বেঞ্চ।

হাজারিবাগ থেকে মামলাটি নতুন দিল্লীতে স্থানান্তরের জন্য অভিযুক্তদের আবেদনের বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের বিচারকরা নির্দেশ দিয়েছেন এবং রাষ্ট্রপক্ষকে দুই সপ্তাহের মধ্যে জবাব দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।