অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে কি তালাক দেওয়া যায়?

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ২১ অক্টোবর, ২০১৮ ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ
তালাক (প্রতীকী ছবি)

পাঠকের জিজ্ঞাসা : আমার স্ত্রী আমার কথার অবাধ্য। প্রায় সময় সে আমাকে কিছু না বলে বাবার বাড়ি চলে যায়। এ ছাড়া সে প্রায়ই একাধিক পুরুষের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলে। এসব বিষয়ে আমি জানার পরে তাকে নিষেধ করলে সে কোনো কথা শোনে না। তার সঙ্গে আমার সংসার করা সম্ভব না। আমি তাকে তালাক দিতে চাই। এ ছাড়া আমার স্ত্রীর ভাষ্যমতে সে অন্তঃসত্ত্বা। এখন অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় কি তালাক দেওয়া যাবে? যদি যায় তাহলে এর পদ্ধতি কী? আর যদি না যায় তাহলে বাচ্চা হওয়ার কত দিন পর তালাক দেওয়া যায়? বাচ্চার দায়ভার কার ওপর থাকবে? এ ক্ষেত্রে আইনগত জটিলতা কী কী? আর এর সমাধানের পথ কী? জানালে উপকৃত হবো।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক, মৌলভীবাজার থেকে

আইনজীবীর উত্তর : অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় স্ত্রীকে তালাক দেওয়া যায়। তবে গর্ভাবস্থায় তালাক দিলে সন্তান ভূমিষ্ঠ না হওয়া পর্যন্ত তালাক কার্যকরী হবে না। এ ক্ষেত্রে ৯০ দিন এবং সন্তান ভূমিষ্ট হওয়ার মধ্যে যেদিনটি পরে হবে সেদিন থেকে তালাক কার্যকর হবে৷

অর্থাৎ স্ত্রী গর্ভবতী হলে, সন্তান প্রসব না হওয়া পর্যন্ত তালাক কার্যকর হবে না। তবে মনে রাখতে হবে এই ৯০ দিন পর্যন্ত স্ত্রী পূর্ণ ভরণপোষণ পেতে আইনত হকদার।

বাচ্চার দায়ভার : তালাকের পর সন্তান মায়ের কাছে থাকবে। এ ক্ষেত্রে ছেলে সন্তান ৭ বছর পর্যন্ত এবং মেয়ে সন্তান বয়ঃসদ্ধিকাল পর্যন্ত মায়ের কাছে থাকবে৷ তবে তাদের ভরণপোষণের দায়িত্ব বাবা বহন করবে৷

পরামর্শক: শুভ্র সিনহা রায়, অ্যাডভোকেট, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট