প্রশিক্ষণ নিতে ডিসেম্বরে ভারত যাচ্ছেন ৪০ বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তা

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ৬:১২ অপরাহ্ণ
ছবি - প্রতীকী

প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণের জন্য ভারতে যাচ্ছেন ৪০জন বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তা। আগামী ৭ ডিসেম্বর থেকে ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ভারতের ভূপালে অবস্থিত ন্যশনাল জুডিশিয়াল একাডেমীতে এ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হবে।

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়য়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মোঃ নুরুল আলম সিদ্দীক স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সঙ্গে পরামর্শক্রমে জুডিশিয়াল সার্ভিসের সদস্যদের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচীতে অংশগ্রহণের জন্য ৪০জন বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাকে অনুমতি দিয়েছে সরকার।

তারা হলেন – আইন ও বিচার বিভাগের সংযুক্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ কাওসার, ঢাকার প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনাল – ১ এর সদস্য মোঃ ইসরাইল হোসেন, মুন্সিগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক বেগম শিরীন কবিতা আখতার, কুমিল্লার জেলা ও দায়রা জজ কে এম সামছুল আলম, রাজশাহীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ মনসুর আলম, খুলনার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ আব্দুর রব হাওলাদার, কিশোরগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক কিরণ শঙ্কর হালদার, চাঁদপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ আব্দুল মান্নান, খাগড়াছড়ির নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ ইসমাইল, খুলনা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক মোহাঃ মহিদুজ্জামান, শেরপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ আখতারুজ্জামান, চট্টগ্রাম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৫ এর বিচারক মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান সিদ্দিক, নীলফামারীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক মোঃ মাহবুবুর রহমান, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের পরিচালক একিউএম নাসির উদ্দিন, ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদ, পিরোজপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ মিজানুর রহমান, মাদারীপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোসাম্মৎ দিলরুবা সুলতানা, কিশোরগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক মোঃ সোলায়মান, রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক মোঃ রোকনুজ্জামান, বগুড়ার বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মোঃ এমরান হোসেন চৌধুরী, বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশনের উপ-সচিব শাহরিয়ার কবির, ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মোঃ আল-মামুন, নওগাঁর অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোঃ মজিবুর রহমান, রাজশাহীর অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাঃ ইমদাদুল হক, রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোঃ আব্দুল মজিদ, চট্টগ্রামের অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ জান্নাতুল ফেরদাউস চৌধুরী, ঢাকার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রদীপ কুমার রায়, খুলনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোঃ হায়দার আলী খোন্দকার, ঢাকার দ্বিতীয় কোর্ট অব সেটেলমেন্ট এর সদস্য বেগম মাকসুদা পারভীন, সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ  মোঃ জাকির হোসেন খান, কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আশিকুল খবির, রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এ.বি.এ.এম. গোলাম রসুল, সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোঃ আমিরুল ইসলাম, ঢাকার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ বেগম জিনাত সুলতানা, কুষ্টিয়ার যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ শেখ মোহাঃ আমিনুল ইসলাম, ময়মনসিংহের ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ মোমিনুল ইসলাম, কুমিল্লার যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ বেগম সেলিনা আক্তার, ফেনীর ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ আব্দুল হান্নান, গাইবান্ধার ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ.কে.এম. কামাল উদ্দিন এবং বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের উপ-পরিচালক আল আসাদ মোঃ মাহমুদুল ইসলাম।

এ প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণের জন্য আগামী ৫ ডিসেম্বর ভারতের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন এ ৪০জন বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তা এবং প্রশিক্ষণ শেষে দেশে ফিরে আসবেন ২৩ ডিসেম্বর। প্রশিক্ষণের যাবতীয় ব্যয়ভার বহন করবে ভারত সরকার।