তৃতীয়বারের মতো নির্দিষ্ট সময়ে ভোট হচ্ছে এটাই বড় বিষয়

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১২:২২ অপরাহ্ণ
সাবেক প্রধান বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হক (ফাইল ছবি)

আইন কমিশনের চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রধান বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হক বলেছেন, দেশে একবার ক্ষমতায় এসে অবৈধভাবে দীর্ঘদিন জবরদখল করে থাকার রেকর্ড রয়েছে। সে ইতিহাস বেশি দূরের নয়। এবার অন্তত এটা ভেবে ভালো লাগছে, টানা তৃতীয়বারের মতো নির্দিষ্ট সময়েই ভোট হচ্ছে। মানুষ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাচ্ছে। এটাই বড় বিষয়।

এ বি এম খায়রুল হক বলেন, এ নির্বাচনে দেশের সব রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ করছে। প্রার্থীরা তাদের প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন। সব মিলিয়ে ৩০ ডিসেম্বর একটি ভালো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে প্রত্যাশা তার।

সাবেক প্রধান বিচারপতি বলেন, ১৯৭৫ সালে জাতির পিতাকে হত্যা করে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করেছিল তৎকালীন দখলদার সরকার। এর পর থেকে যে সরকারই ক্ষমতায় এসেছে তারাই জোর করে ক্ষমতায় থাকার চেষ্টা করেছে। সাধারণ মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। অবৈধ সামরিক সরকার দেশ থেকে গণতন্ত্র উঠিয়ে দিয়েছিল। ১৯৯১ সালে দেশে আবার গণতন্ত্র ফিরেছে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নির্বাচন খারাপ হচ্ছে না। আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত-পাকিস্তানের তুলনায় অনেক ভালো নির্বাচন হচ্ছে। ওইসব দেশে তো নির্বাচন ছাড়াও প্রতিদিন বোমা ফাটে, খুনোখুনি হয়। তার চেয়ে আমরা আল্লাহর মেহেরবানিতে অনেক ভালো আছি। মানুষ যার যার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারে। তিনি বলেন, যে রাজনৈতিক দল ক্ষমতায় আছে, গত দুই মেয়াদে তারা ভালোভাবেই দেশ চালিয়েছে। দেশে অনেক উন্নয়ন কাজ করেছে। বড় বড় প্রকল্প হাতে নিয়েছে। আমার মনে হয় সাধারণ মানুষ তাদের পছন্দ করে। তিনি আরও বলেন, পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে আমাদের উন্নয়নের সূচক অনেক ওপরে। এ কয়েক বছরের মধ্যে আমার তাদের ছাড়িয়ে গেছি। বিশ্ববিখ্যাত ইকোনোমিস্ট পত্রিকা আমাদের দেশে বিক্রি হয় সাড়ে পাঁচশ টাকায়। আর সেই একই পত্রিকা পাকিস্তানে বিক্রি হয় আটশ রুপিতে।

এতেই বুঝা যায় আমাদের অর্থনৈতিক অবস্থান ভারত, বিশেষ করে পাকিস্তানের তুলনায় অনেক শক্ত অবস্থানে রয়েছে। দেশের চলমান উন্নয়ন কাজের ধারাবাহিকতা ভাবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেন সাবেক এ প্রধান বিচারপতি।