মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় কমিশনের ব্যর্থতায় হাইকোর্টের রুল

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ৯ জানুয়ারি, ২০১৯ ২:১১ অপরাহ্ণ

মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় যথাযথ পদক্ষেপ নিতে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের ব্যর্থতা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না -তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

এ সংক্রান্ত এক রিটের শুনানি নিয়ে আজ বুধবার (৯ জানুয়ারি) হাইকোর্টের বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রুল জারি করেন।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব ও মানবাধিকার কমিশনসহ সাতজনকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

একইসঙ্গে মিরপুরে গৃহকর্মী খাদিজাকে নিযাতনের ঘটনায় কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে তা আগামী ৩০ দিনের মধ্যে আদালতকে জানাতে স্বরাষ্ট্র সচিবকে নির্দেশ দিয়েছেন।

২০১৩ সালে ওই গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না নেওয়ায় চিলড্রেন চ্যারিটি ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের পক্ষে গত বছরের ২২ ডিসেম্বর হাইকোর্টে একটি রিট দায়ের করা হয়। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত আজ এ আদেশ দিলেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আব্দুল হালিম এবং তাকে সহযোগিতা করেন জামিউল হক ফয়সাল।

আইনজীবী আব্দুল হালিম জানান, মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের ব্যর্থতা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না -তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত। একই সঙ্গে ওই গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনায় কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে তা আগামী ৩০ দিনের মধ্যে জানাতে স্বরাষ্ট্র সচিবকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি এ মামলাটি শুনানির জন্য কার্যতালিকায় থাকবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবী।

২০১৩ সালে রাজধানীর মিরপুরে গৃহকর্মী খাদিজাকে নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় একটি জাতীয় পত্রিকায় রিপোর্ট প্রকাশ হয়। ওই রিপোর্টের পরে চিলড্রেন চ্যারিটি ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে মানবাধিকার কমিশনে ব্যবস্থা নিতে চিঠি দেয়। এরপর পাঁচ বছর কেটে গেলেও কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় হাইকোর্টেে রিট দায়ের করা হয়।