বিনামূল্যের নতুন বই কেজি দরে বিক্রি, চারজনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ১৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ৫:৫০ অপরাহ্ণ
হবিগঞ্জ পৌর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ভাঙারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্থরের ২০১৮-১৯ সালের পাঁচ হাজারের অধিক সরকারি নতুন বই জব্দ

হবিগঞ্জ পৌর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ভাঙারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্থরের ২০১৮-১৯ সালের পাঁচ হাজারের অধিক সরকারি নতুন বই জব্দ হওয়ার ঘটনায় চার জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় গ্রেফতার দুই জনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বাকি দু’জন পলাতক রয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১৫ জানুয়ারি) হবিগঞ্জ কোর্ট স্টেশন পুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

আসামিদের মধ্যে লাখাই উপজেলার পশ্চিম বুল্লা গ্রামের আমিরুল মিয়ার ছেলে রাসেল মিয়া (৩০) ও একই গ্রামের নূর মিয়ার ছেলে হাশিম মিয়াকে (৩৫) মঙ্গলবার করাগারে পাঠানো হয়েছে। বাকি দুই আসামি ভাঙারি দোকানের মালিক ময়না মিয়া ও দুলাল মিয়া পলাতক রয়েছেন।

হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) মো. জিয়াউর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, সরকারি বইগুলো কেজির হিসেবে ক্রয় করে বিক্রির উদ্দেশ্যে রেখে দেওয়া হয়েছিল। খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে পাঁচ হাজারেরও অধিক বইসহ দু’জনকে আটক করে। আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে মূল তথ্য বেরিয়ে আসবে।

এ ঘটনার সঙ্গে কে বা কারা জড়িত তা খুঁজে বের করার জন্য কাজ করছে পুলিশ। তদন্তের স্বার্থে এর বেশি তথ্য প্রকাশ করতে অপারগতা প্রকাশ করেন তিনি।

ওসি আরও জানান, ঘটনার পর তিনি তার অধীনস্থ সব গোডাউন এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে খবর নিয়েছেন। জব্দ হওয়ার বইগুলো তাদের অফিসের না বলে শতভাগ নিশ্চয়তা দেন তিনি।

এ ব্যাপারে কথা বলতে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা অনিল কৃষ্ণ মজুমদারের সঙ্গে বার বার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।