পশ্চিমবঙ্গে পাকিস্তানি বন্দীদের নিরাপত্তা জোরদার

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১২:৫৪ অপরাহ্ণ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ সরকার কলকাতার কারাগারে বন্দী ১৪ পাকিস্তানি নাগরিকের নিরাপত্তা জোরদার করেছে। ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের পুরওয়ামায় সিআরপিএফর গাড়িবহরে পাকিস্তানি জঙ্গিদের হামলার জেরে সীমান্তে বেড়ে যাওয়া উত্তেজনার পরিপ্রেক্ষিতে সরকার এ পদক্ষেপ নিল।

এসব পাকিস্তানি বন্দীরা অনুপ্রবেশ, চুরি-ডাকাতি ও হাঙ্গামার সঙ্গে জড়িয়ে কলকাতার দুটি কারাগারে বন্দী আছেন। এই ১৪ বন্দীর মধ্যে ১০ জন দমদম কেন্দ্রীয় কারাগারে এবং চারজন প্রেসিডেন্সি কারাগারে আছেন। এর মধ্যে ফাঁসির সাজাপ্রাপ্ত আসামি যেমন রয়েছে, তেমনি যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ও বিচারাধীন আসামিও আছেন। দণ্ডপ্রাপ্তদের বেশির ভাগই জঙ্গি কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

এবার পুলওয়ামার ঘটনার পর পশ্চিমবঙ্গ সরকার এই ১৪ পাকিস্তানি বন্দীর নিরাপত্তা জোরদার করার সিদ্ধান্ত নেয়। নিরাপত্তার জন্য তৈরি করা হয়েছে তিন স্তরের কর্ডন। রাখা হয়েছে উচ্চ নিরাপত্তার সেলে। কারাগার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ২৪ ঘণ্টাই এই বন্দীদের কড়া নজরদারির মধ্যে রাখা হয়েছে।

এক কারা কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, রাজস্থান কারাগারের ঘটনার পর পশ্চিমবঙ্গ সরকার পাকিস্তানি বন্দীদের নিয়ে আর কোনো ঝুঁকি নিতে চাইছে না। পুলওয়ামার ঘটনার পর রাজস্থানের রাজধানী জয়পুরের কারাগারে এক পাকিস্তানি বন্দীর মৃত্যু হয়। অভিযোগ ওঠে, ওই কারাগারের টিভি দেখাকে কেন্দ্র করে বন্দীদের মধ্যে এক সংঘর্ষে তিন বন্দীর হাতে পাকিস্তানি বন্দী শাকিরউল্লা ওরফে মুহম্মদ হানিফ মারধরের শিকার হন। জঙ্গি কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত থাকার দায়ে তিনি ওই কারাগারে বন্দী ছিলেন। পরে ওই বন্দীর মৃত্যু হয়।