নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন নিয়ে হাইকোর্টের রায় স্থগিত

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ১৪ মার্চ, ২০১৯ ৫:৩১ অপরাহ্ণ
ঊচ্চ আদালত

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) সিবিএর দায়িত্ব পালনকারী সংগঠন বিআইডব্লিউটিএ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নকে অবৈধ ঘোষণা করে দেয়া হাইকোর্ট এর রায় ৮ সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপীল বিভাগ।

আজ বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

একই সাথে পূর্ণাঙ্গ রায় পাওয়ার সাথে সাথে নিয়মিত আপীল দায়ের জন্য আদেশ দেন আদালত। ফলে মামলার চূড়ান্ত নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত সংগঠনের কার্যক্রম চলতে কোন আইনগত বাধা রইল না।

আদালতে বিআইডব্লিউটিএ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন এর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, এডভোকেট খুরশীদ আলম খান, ও এডভোকেট মাহবুবুল হক।

আদেশের বিষয়টি ল’ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ ডটকমকে নিশ্চিত করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী নাসির শিকদার।

এর আগে, ওই সংগঠনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা এক রিটের ওপর শুনানি শেষে সোমবার (১১ মার্চ) হাইকোর্টের বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ বিআইডব্লিউটিএ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নকে অবৈধ ঘোষণা করেন। একইসঙ্গে সংগঠনের নিবন্ধন বাতিলের জন্য শ্রম অধিদফতরকে নির্দেশ দেয়া হয়।

সেদিন আদালতে বিআইডব্লিউটিএ শ্রমিক কর্মচারি ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদকের পক্ষে ছিলেন সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ ও মাহবুব শফিক।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে শ্রম অধিদফতর থেকে নিবন্ধন পায় বিআইডব্লিউটিএ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়ন, যার নিবন্ধন নম্বর বি-২১৭৬। একই বছরের জুনে সিবিএর স্বীকৃতি পায় সংগঠনটি। তবে এই সংগঠনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন বিআইডব্লিউটিএর নারায়ণগঞ্জ নদীবন্দরের মেডিকেল অ্যাটেন্ডেন্ট এবং বিআইডব্লিউটিএ এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. মুজিবর রহমান।

রিটকারীর আবেদনে বলা হয়, শ্রম আইন অনুযায়ী কোনো রাষ্ট্রীয় সংস্থায় তিনটির বেশি ট্রেড ইউনিয়ন নিবন্ধন পেতে পারে না। বিআইডব্লিউটিএ-তে এর আগে আরও চারটি ট্রেড ইউনিয়নকে নিবন্ধন দেয়া হয়েছে এবং এই তথ্য গোপন করে সর্বশেষ বিআইডব্লিউটিএ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নকে বেআইনিভাবে নিবন্ধন দিয়েছে শ্রম অধিদফতর। সুতরাং সর্বশেষ নিবন্ধিত সংগঠনটি অবৈধ।