অ্যাডভোকেট সিরাজ প্রামাণিক’র এম.ফিল ডিগ্রি লাভ

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ৯ এপ্রিল, ২০১৯ ১১:০১ পূর্বাহ্ণ
অ্যাডভোকেট সিরাজ প্রামাণিক

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী, বিশিষ্ট কলামিস্ট ও আইনগ্রন্থ প্রণেতা পি.এম. সিরাজুল ইসলাম (সিরাজ প্রামাণিক) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম.ফিল ডিগ্রি অর্জন করেছেন। একাডেমিক কাউন্সিলের ১১৫তম সভার সুপারিশক্রমে এবং ৫ এপ্রিল’২০১৯ ইং তারিখের সিন্ডিকেটের ২৪৪তম সভায় এ ডিগ্রি অনুমোদন করা হয়। তার গবেষণার বিষয় ছিল “Right to Life and Personal Liberty in Bangladesh with Special Reference to Extra-Judicial Killing.”

তার এই গবেষণা কর্মের তত্ত্বাবধায়ক ছিলেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ও ডিন প্রখ্যাত স্কলার প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান মন্ডল। পরীক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহম্মাদ জাফরউল্লাহ তালুকদার ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোঃ করিম খান। তিনি কুষ্টিয়ার খোকসা মালিগ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও জুবিলি ব্যাংক লিমিটেডের সাবেক ডিরেক্টর মোন্তাজ প্রামাণিক ও হাসিনা মোন্তাজের ঘরে দশম সন্তান হিসেবে ২৮/১১/১৯৮২ ইং তারিখে জন্মগ্রহন করেন। তাঁর সার্টিফিকেট নাম পি.এম. সিরাজুল ইসলাম; কিন্তু আইন পেশা ও সংবাদ মাধ্যমে তিনি সিরাজ প্রামাণিক নামেই পরিচিত। তাঁর গবেষণার বেশির ভাগ অংশজুড়েই ছিল মানুষের জীবনের অধিকার, ব্যক্তি স্বাধীনতা, মত প্রকাশের অধিকার ও বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড। আইনের দৃষ্টিতে প্রত্যেক নাগরিক সমান এবং আইনের সমান আশ্রয়লাভের অধিকারী। আইন অনুযায়ী ব্যতীত কাউকে জীবন ও ব্যক্তিস্বাধীনতা থেকে বঞ্চিত করা যাবে না। আইনের মাধ্যমে যুক্তিসংগত বাধানিষেধ সাপেক্ষে প্রত্যেক নাগরিকের চিন্তা, বিবেক ও বাকস্বাধীনতা থাকবে। সংবাদক্ষেত্রের স্বাধীনতাও একটি মৌলিক অধিকার। পুরো গবেষণাপত্রে এ-সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি কেস স্টাডি বর্ণনা করেন সিরাজ প্রামাণিক। দেশী ও আন্তর্জাতিক গবেষণামূলক জার্নালে তাঁর ২০টির বেশি প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। এখন তাঁর অভিসন্দর্ভটি বই আকারে প্রকাশের কাজ চলছে। তিনি নিয়মিত আইনবিষয়ক কলাম লিখে চলেছেন ‘দি ডেইলী অবজারভার’সহ একাধিক জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিক পত্রিকায়। প্রকাশিত আইন গ্রন্থের সংখ্যা আঠাশটি। আইনবিষয়ক কলাম লেখায় ২০১১ সালে পান দৈনিক বাংলাদেশ বার্তা পদক, শিশু অধিকার নিয়ে রিপোর্ট করায় ২০১৫ সালে পান ‘জাতীয় শিশু পদক’ ও মানবাধিকার নিয়ে কলাম লেখায় ২০১৬ সালে পান ‘এজাহিকাফ পারফরমেন্স এ্যাওয়ার্ড’। তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থগুলো যথাক্রমে-পকেট আইন, আইনে আপনার যত অধিকার, ২১টি আইনের সহজ পাঠ, জমি ক্রয়-বিক্রয় আইন, জমি জমার আইন-কানুন ও আলোচনা, রেজিস্ট্রেশন এ্যাক্ট এন্ড ডিড রাইটিং উইথ মডেল, রিমান্ড আইন, বিয়ে-তালাক-দেনমোহর-যৌতুক ও নারী-শিশু নির্যাতন দমন আইন, সংবাদপত্র বিষয়ক আইন, কমন ক্রিমিনাল প্র্যাকটিস, বীকন এ্যাডভোকেটশীপ গাইড, ফৌজদারী মামলা পিটিশন পদ্ধতি, জামিন, জেরা ও যুক্তিতর্কের কলাকৌশল, দোষ স্বীকারোক্তি, পারিবারিক আইন ও উত্তরাধিকার আইন, লিগ্যাল নোটিশ ও এ্যাফিডেভিট করার পদ্ধতি, যৌনাচার, অত্যাচার বনাম আইনগত প্রতিকার, প্রাত্যহিক জীবনে আইন, ওয়াকফ বিষয়ক আইন প্রভৃতি।