ধানক্ষেতে পাওয়া নবজাতকের দায়িত্ব নিলেন বিচারক দম্পতি

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল, ২০১৯ ৪:৪০ অপরাহ্ণ
ধানক্ষেতে পাওয়া নবজাতক

গাইবান্ধার পলাশবাড়ি উপজেলার হরিনাবাড়ি গোডাউন বাজার এলাকার ধানক্ষেত থেকে উদ্ধার হওয়া নবজাতকের দায়িত্ব নিলেন এক বিচারক দম্পতি। তবে এ বিচারক দম্পতির পরিচয় দিতে রাজি হয়নি পুলিশ।

আজ রোববার (২১ এপ্রিল) দুপুরে গাইবান্ধার পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে পুলিশের পক্ষ থেকে নবজাতককে হস্তান্তরের বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। এ সময় গাইবান্ধার পুলিশ সুপার আবদুল মান্নান মিয়া নবজাতককে বিচারক দম্পতির কাছে হস্তান্তর করেন।

পুলিশ জানায়, ১৬ এপ্রিল পলাশবাড়ি উপজেলার হরিনাবাড়ি গোডাউন বাজার এলাকার একটি ধানক্ষেতে এক নবজাতক পড়েছিল। কে-বা কারা এ নবজাতককে ফেলে গেছে তাদের পরিচয় জানা যায়নি। শিশুটিকে ধানক্ষেতে পড়ে থাকতে দেখে একই এলাকার শামিমা নামে এক নারী উদ্ধার করেন। পরে ওই শিশুকে নিজের বুকের দুধ পান করান শামিমা।

একই দিন শিশুটিকে গাইবান্ধা জেলা সদর আধুনিক হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এ বিষয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলে পলাশবাড়ি থানা পুলিশ শিশুটির প্রাথমিক দেখাশোনার দায়িত্ব নেয়।

গাইবান্ধার পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আবদুল মান্নান মিয়া বলেন, ধানক্ষেত থেকে উদ্ধার নবজাতকের দেখাশোনার দায়িত্ব নিয়েছিল পুলিশ। এরই মধ্যে ওই নবজাতকের দায়িত্ব নেয়ার জন্য বিচারক দম্পতিসহ কয়েকজন নিঃসন্তান দম্পতি আগ্রহ প্রকাশ করে। বিষয়টি নিয়ে ১৬ সদস্যের একটি টিম গঠন করে জেলা প্রশাসন। কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রোববার আইনি প্রক্রিয়া শেষে এক বিচারক দম্পতির কাছে ওই নবজাতককে হস্তান্তর করা হয়।

পুলিশ সুপার আবদুল মান্নান আরও বলেন, নবজাতকের দায়িত্ব নেয়া বিচারক দম্পতি তাদের পরিচয় গোপন রাখার জন্য আমাদের কাছে অনুরোধ করেছেন। তাই তাদের পরিচয় জানানো যাচ্ছে না।