lawyers club Add Section
ঢাকা || মঙ্গলবার , ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং || ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ || ২৩শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

৩০ নভেম্বরের মধ্যে আয়কর রিটার্ন জমা না দিলে জরিমানা

আগামীকাল বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) শেষ হচ্ছে ব্যক্তিশ্রেণির আয়কর বিবরণী বা রিটার্ন জমা দেওয়ার সময়। ওই দিন রাত ১০ টার মধ্যে যারা রিটার্ন জমা দিতে ব্যর্থ হবেন, তাদের নির্ধারিত করের ওপর মাসিক দুই শতাংশ হারে সুদ দিতে হবে। সুদ নির্ধারণ করা হবে সারাবছরে ওই করদাতা যে উৎসে কর ও অগ্রিম কর দিয়েছেন, তা বাদ দিয়ে আয়করের ওপর। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অর্থাৎ বৃহস্পতিবারের পর কেউ আয়কর বিবরণী বা রিটার্ন জমা দিতে চাইলে তাকে নির্দিষ্ট হারে জরিমানা দিতে হবে।

এ প্রসঙ্গে এনবিআরের সদস্য আবদুর রাজ্জাক গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) রাত ১০ টার মধ্যে রিটার্ন জমা দিতে হবে। এর পর কেউ আয়কর রিটার্ন জমা দিতে চাইলে তাকে বিলম্ব সুদ দিতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘কোনোভাবেই রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় বাড়ানো হবে না। নির্ধারিত সময়ে কোনও করদাতা বার্ষিক আয়কর বিবরণী জমা দিতে ব্যর্থ হলে ওই ব্যক্তির করের ওপর মাসিক দুই শতাংশ হারে সুদ দিতে হবে।’

এদিকে আগামী ৩০ নভেম্বর পালিত হবে ‘ট্যাক্স ডে’ বা কর দিবস।

জানা গেছে, বিলম্ব সুদ পরিশোধ করে যৌক্তিক কারণ দেখিয়ে যেকোনও করদাতা ইচ্ছে করলে রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় বাড়িয়ে নিতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে যথাযথ নিয়ম মেনে আবেদন করতে হবে। সংশ্লিষ্ট উপ-কর কমিশনার বরাবর আবেদন করা হলে তিনি আয়কর দাতার দুই মাস পর্যন্ত সময় বাড়িয়ে দিতে পারেন।

প্রসঙ্গত, বছরে যাদের আয় আড়াই লাখ টাকার বেশি তাদের সবাইকে রিটার্ন জমা দিতে হবে। এমনকি প্রত্যেক গাড়ির মালিক ও অভিজাত ক্লাবের সদস্যদের বছরে আড়াই লাখ টাকার কম আয় হলেও তাদের রিটার্ন জমা দিতে হবে। এছাড়া পেশাজীবী চিকিৎসক,প্রকৌশলী,ব্যবসায়ী,ঠিকাদার,জনপ্রতিনিধি ও আইনজীবীদের করযোগ্য আয় না থাকলেও রিটার্ন জমা দিতে হবে।

এদিকে, গত ২৪ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর আয়কর সপ্তাহ পালন করছে এনবিআর। আয়কর মেলার মতোই সুযোগ দিয়ে এই আয়কর সপ্তাহ পালিত হচ্ছে। প্রতিটি সার্কেল ও কর অঞ্চল কার্যালয়ে সহায়তা কেন্দ্র খোলা হয়েছে। করদাতাদের সুবিধার্থে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত রিটার্ন জমা নেওয়া হচ্ছে।

এ বছর বাংলাদেশের ৬৪ জেলা থেকে বাছাই করা ৮৪টি পরিবারকে ‘কর বাহাদুর’ হিসেবে সম্মানিত করেছে এনবিআর। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে জেলা ও জাতীয় পর্যায়ে সর্বোচ্চ কর পরিশোধের জন্য প্রথমবারের মতো এই সম্মাননা দেয় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। এছাড়া, আয়কর মেলা ২০১৭-তে এনবিআরের নতুন উদ্ভাবন ছিল করদাতাদের জন্য ইনকাম ট্যাক্স আইডি কার্ড প্রদান। প্রথমবার আয়কর মেলায় ৯১ হাজার ২৫০ জন করদাতাকে এ পরিচয়পত্র প্রদান করা হয়।

এনবিআর থেকে জানা গেছে, ১ থেকে ৭ নভেম্বর রাজধানীসহ দেশের ৫৬টি জেলা শহরে, ৩৪টি উপজেলা, ৭১টি উপজেলায় (ভ্রাম্যমাণ) আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হয়। মেলায় সারাদেশে আয়কর আহরণ হয়েছে দুই হাজার ২১৭ কোটি ৩৩ লাখ ১৪ হাজার ২২১ টাকা। গত বছরের চেয়ে এবার আয়কর বেশি আহরণ হয়েছে ৮৭ কোটি ৬৫ লাখ ৩৮ হাজার ৪১০ টাকা, যা গত বছর ছিল ২ হাজার ১২৩ কোটি ৬৭ লাখ ৭৫ হাজার ৮১১ টাকা। অর্থাৎ এ বছর আয়কর প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৪ দশমিক ১২ শতাংশ।

এছাড়া, এবার আয়কর মেলা থেকে সেবা নিয়েছে ১১ লাখ ৬৯ হাজার ৫৬৯ জন। গত বছর যা ছিল ৯ লাখ ২৮ হাজার ৯৭৩ জন। আর এবার রিটার্ন দাখিল করেছেন ৩ লাখ ৩৫ হাজার ৪৮৭ জন। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ১ লাখ ৯৪ হাজার ৫৯৮ জন।

নিজস্ব প্রতিনিধি/ল’ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ ডটকম