ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির দায়ে দুই শিক্ষার্থী আটক


প্রকাশিত :০৫.০১.২০১৭, ১১:০৯ পূর্বাহ্ণ

image-4798চান্স পেতে এক ভর্তিচ্ছু অন্যজনকে দিয়ে পরীক্ষা দেওয়ায়। তবে ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে ওই ভুয়া পরীক্ষার্থী ধরা পড়েনি। রীতিমতে মেধা তালিকায় তৃতীয় অবস্থানও নেন পুলক কুমার রায় নামের এই ভর্তিচ্ছু। বিধিবাম, সাক্ষাৎকার দিতে এসে নিজের বাবার নামের বানান ভুল করে অবশেষে ধরা খেলেন তিনি।

রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথমদিনের মৌখিক পরীক্ষা দিতে এসে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির দায়ে দুই শিক্ষার্থীকে গতকাল বুধবার (৪ জানুয়ারি) আটক করা হয়েছে। রাতে দুইজনকে রংপুর কোতোয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয় বলে গণমাধ্যমকে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর (চলতি দায়িত্ব) মীর তামান্না ছিদ্দিকা।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর দফতর ও পুলিশ সূত্র জানায়, আটক পুলক কুমার রায় প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদভুক্ত ই-ইউনিটের প্রথম শিফটে মেধা তালিকায় তৃতীয় হয়ে মৌখিক পরীক্ষা দিতে এসে আটক হন। পরে তার পরিবর্তে অন্য একজন পরীক্ষা দিয়েছিল বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেন। আটককৃত পুলক কুমার রায় লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার ক্ষিতীশ চন্দ্র রায়ের ছেলে।

আটক অপর ভর্তিচ্ছু সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত বি-ইউনিটে মানবিক বিভাগ থেকে প্রথম শিফটে মেধা তালিকায় নবম অবস্থান করে সাক্ষাৎকার দিতে এসে প্রবেশপত্রের ছবির সঙ্গে চেহারা মিল না থাকায় আটক করা হয়।

পরে আটক মো.আব্দুল হামিদ ভর্তি পরীক্ষায় তার পরিবর্তে অন্য একজন পরীক্ষা দিয়েছিল বলে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেন। আটক মো. আব্দুল হামিদ টাঙ্গাইল জেলার মধুপুর উপজেলার বেলাল হোসেনের ছেলে।

এ ব্যাপারে কথা বললে বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক এরশাদ আলী গণমাধ্যমকে জানান, দুইজনকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আটক করে তাদের কাছে হস্তান্তর করেছে। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

 

রংপুর প্রতিনিধি/ল’ইয়ার্সক্লাববাংলাদেশ.কম



ট্রেডমার্ক ও কপিরাইট © 2016 lawyersclubbangladesh এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Designed By Linckon