হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করায় পাবনা ডিসি’র ক্ষমা প্রার্থনা


প্রকাশিত :১০.০১.২০১৭, ১০:২০ অপরাহ্ণ

18205

হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করায় পাবনা জেলা প্রশাসক রেখা রানী বালো আদালতে মুচলেকা দিয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি আশীষ রঞ্জন দাসের দৈত বেঞ্চ তার আবেদন মঞ্জুর করেন।

এসময় তাকে আদালতে ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি দিয়ে পরবর্তী তারিখ নির্ধারণে আগে আদেশ বাস্তবায়ন করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার আইনজীবী মো. মেসবাহুল ইসলাম আসিফ জানান, পাবনা জেলার ঈশ্বরদী উপজেলার মশুরিয়া গ্রামের আব্দুর রহিম গং বাদী হয়ে মশুরিয়া মৌজার ১.২৭ একর সম্পত্তি দখল ফিরে পাওয়ার জন্যে সুপ্রীমকোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন। যার নং-১৬৮০/২০১৪।

বিজ্ঞ আদালত গত ২৭/১১/২০১৪ তারিখে রিট পিটিশনারের অনুকূলে ওই সম্পত্তি সরেজমিন দখল বুঝে দেওয়ার জন্য পাবনা জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দেন। আদালতের আদেশ দীর্ঘদিনেও বাস্তবায়ন না করায় বাদী আব্দুর রহিম গং আদালত অবমাননার দায়ে অপর একটি পিটিশন (নং-২৭৭/২০১৫) দায়ের করেন।
আদালত অবমাননার দায়ে রুল ইস্যু করে ওই সম্পত্তির দখল হস্তান্তরের ব্যাপারে পর পর দুইবার পাবনা জেলা প্রশাসক রেখা রাণী বালোকে নির্দেশনা দেন। আদালতের নির্দেশ বাস্তবায়ন না করায় হাইকোর্ট বিভাগ রেখা রাণী বালোকে মঙ্গলবার (১০/১/২০১৭ ইং) আদালতে হাজিরের নির্দেশ দেন। পাবনা জেলা প্রশাসক রেখা রানী বালো হাইকোর্টের বিচারপতি আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি আতীশ রঞ্জন দাসের দৈত বেঞ্চে হাজির হয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করে দুই মাসের সময় প্রার্থনা করেন।

আদালত ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি দিয়ে পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ পূর্বক আদেশ বাস্তবায়ন করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

বাদী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট মো. মেজবাহুল ইসলাম আসিফ ও অ্যাড. সৈয়দ মামুন মাহ্বুব এবং বিবাদী পক্ষে ছিলেন অ্যাড সুব্রত চৌধুরী।



ট্রেডমার্ক ও কপিরাইট © 2016 lawyersclubbangladesh এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Designed By Linckon