রাষ্ট্রের নিরাপত্তা দেয় বিজ্ঞ আইনজীবীরা, সেই আইনজীবীদের নিরাপত্তা দেবে কে?


প্রকাশিত :১৫.০৭.২০১৭, ১২:৩৩ অপরাহ্ণ

adv-nahrinনাহরিন তানিয়া

আমরা আইনজীবীদের দেশের বিবেক বলে অভিহিত করি। সর্বোচ্চ আদালত কতৃক আইনজীবীদের প্রথম শ্রেণীর নাগরিক মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু জাতির এই বিবেকে বারবার হানা দিয়েছে কালো থাবা। সেই একাত্তর এ এটা দেখেছি আমাদের শত্রু সেনাদের সেটা প্রতিহত করতে আমরা পেরেছি কিন্তু আজ এই স্বাধীন সার্বভৌম দেশে প্রতিনিয়ত যখন দেখি পেশি শক্তি দ্বারা আইনজীবীদের দমনের প্রচেষ্টা চালানো হয় তখন পুরো জাতি মুখ থুবরে পরে কেবলই অশনি সংকেত কড়া নেড়ে বলে আইন ও আইনের শাসন কি এতই দূর্বল। জাগো হে আইনজীবী সমাজ জানিয়ে দাও তুমি যতো বড়ই হও না কেন আমরা তোমাদের ভয় পাই না আমরা জাতির বিবেক বিবেক সচল তো দেশ সচল। আজ আমাদের প্রশ্নে এক কোন বিভেদ নাই আমাদের। আজ দেখি আইনজীবীর সন্তান মেরে ফেলা হয়, আইনজীবী বোনকে নির্মম ভাবে অত্যাচার করে চোখ উপরে ফেলার চেষ্টা করা হয়। চন্দন সরকারকে মেরে নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হয়। তখন ভয় হয় সাধারন মানুষ কোথায় দাঁড়াবে। ভয় হয় আইনের হাতিয়ার কি বিকল করার জন্য এ প্রচেষ্টা?

আমি এ কথাগুলো বলে যাবো যতোদিন এটা বন্ধ না হয় আজ বলছি একজন বিজ্ঞ আইনজীবী নাম হচ্ছে এস এম গালিব। নারায়নগঞ্জ বারে প্রাকটিস করেন। নারায়নগঞ্জে তিনি বেশ সুপরিচিত আইনজীবী। আমাদের এই বিজ্ঞ বন্ধু তার এলাকায় সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদমুখর হয়েছিলেন। যার পরিণতিতে গত ১৩ জুলাই দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে পাশবিক কায়দায় রাতে বাসায় ফেরার পর বাসার কাছেই ১০/১২ জন সন্ত্রাসী তাকে এবং তার সহকারীকে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে। সন্ত্রাসীরা তার চোখ উপড়ে ফেলতে চেয়েছিলো। তার পায়ে মারাত্মক ইনজুরি হয়েছে। সন্ত্রাসীরা তাকে মেরে ফেলে যাবার পর এলাকার লোকজন উদ্ধার করে নারায়নগঞ্জ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে ডাক্তাররা অপারগতা প্রকাশ করলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন আছেন।

এই তো চলছে সারাদেশে। চাঁদপুর, সিলেট এর পর এবার আক্রান্ত হলো নারায়নগঞ্জে। এর আগে চট্টগ্রাম এবং গাজীপুরের ঘটনা আপনারা জানেন।

প্রতিবারই দেশজুড়ে আইনজীবীদের প্রতিবাদ এর মুখে ও প্রশাসনের সহায়তায় আমরা দোষীদের শাস্তির আওতায় আনতে পেড়েছি। আমার বিশ্বাস এই অপরাধিদের আমরা না বলি আমরা কেউ এদের আইনি সহায়তার জন্য না দাড়াই। এক হয়ে উপযুক্ত বিচারের সহায়তা করি আদালতকে। সে যতবড়ই মাথা হোক আমাদের এক হয়ে প্রতিহত ও দাঁত ভাংগা জবাব দেই তাহলে ভবিষ্যৎ এ কেউ এতো দুঃসাহস দেখাতে সাহস পাবে না। আইনের শক্তিতে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করতে আইনজীবীগণ আরও সোচ্চার হবে। কোন রক্ত চক্ষু টলাতে পারবে না আমাদের।
লেখক: আইনজীবী ও সংস্কৃতি কর্মী



ট্রেডমার্ক ও কপিরাইট © 2016 lawyersclubbangladesh এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Designed By Linckon