মানুষখেকো বাঘিনীর মৃত্যু পরোয়ানা বহাল


প্রকাশিত :১৫.১০.২০১৭, ১:০৩ অপরাহ্ণ

tiger_ভারতের এক আদালত দুই বছরের মানুষখেকো এক বাঘিনীকে হত্যার পরোয়ানা বহাল রেখেছেন।

এই বাঘিনীর হাতে চারজন মানুষের জীবন যাওয়ার পর সেটিকে হত্যার জন্য গত ২৩ জুন নির্দেশ জারি করে মহারাষ্ট্রের বন বিভাগ। কিন্তু মহারাষ্ট্রের আদালতে এই নির্দেশ চ্যালেঞ্জ করেন পশু অধিকারকর্মীরা।

গত জুলাইয়ে মহারাষ্ট্রের ব্রাহ্মপুরীতে এই বাঘিনীর হাতে দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়। প্রাণীটির আক্রমণে আহত হন আরো চারজন। এরপর বন বিভাগের হাতে এটি ধরা পড়ে। তারপর রেডিও কলার পরিয়ে এটিকে আবার একটি টাইগার রিজার্ভে ছেড়ে দেওয়া হয়। কিন্তু ছাড়া পাওয়ার পর এই বাঘিনীর হামলায় প্রাণ হারান আরো দুজন। এরপরই বন বিভাগ এটিকে গুলি করে হত্যার নির্দেশ দেয়। কিন্তু আদালতে সেটি চ্যালেঞ্জ করেন পশু অধিকারকর্মী ড. জেরিল বানাইট। তাঁর যুক্তি, এটিকে গুলি করে না মেরে চেতনানাশক বুলেট ছুড়ে ধরা হোক। তারপর ছেড়ে দেওয়া হোক দূরের কোনো জঙ্গলে।

বন বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, কালা নামের এই বাঘিনী গত ২৯ জুলাই সংরক্ষিত বনে ঢোকার পর এ পর্যন্ত ৫০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে। রেডিও কলার দিয়ে এর গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বিশ্বে যত বাঘ আছে, তার ৬০ শতাংশই ভারতে। কিন্তু বনাঞ্চল ধ্বংসের ফলে এবং শিকারিদের উৎপাতে বাঘের সংখ্যা কমে গেছে অনেক।

সূত্র : বিবিসি।

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক/ল’ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ ডটকম



ট্রেডমার্ক ও কপিরাইট © 2016 lawyersclubbangladesh এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Designed By Linckon