আন্তর্জাতিক কপিরাইট দিবসে ঢাকায় সেমিনার অনুষ্ঠিত

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ
'সমকালীন বিশ্বে কপিরাইট আইনঃ সম্প্রচার ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের বিকাশ' শীর্ষক সেমিনার

আন্তর্জাতিক কপিরাইট দিবস উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ কপিরাইট অফিসের উদ্যোগে “সমকালীন বিশ্বে কপিরাইট আইনঃ সম্প্রচার ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের বিকাশ” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। জাতীয় গ্রন্থাগার ভবন মিলনায়তনে গতকাল মঙ্গলবার ( ২৩ এপ্রিল) এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

রেজিস্ট্রার অফ কপিরাইট জাফর রাজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব ড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল।

মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন লাইসেন্স কালেক্টিং সোসাইটি ফর সিনেমাটোগ্রাফি নামক সিএমও’র পেসিডেন্ট ব্যারিস্টার ওলোরা আফরিন। মূল প্রবন্ধে ব্যারিস্টার ওলোরা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ও ব্রডকাস্টিংয়ের ক্ষেত্রে সমকালীন বিশ্বের বিদ্যমান চিত্র তুলে ধরেন। এছাড়া ভারত, ব্রিটেন, জাপান এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের কপিরাইট আইনের এ সংশ্লিষ্ট ধারাসমূহের উদ্ধৃতি দেন। তিনি ইউরোপীয় ইউনিয়নের পার্লামেন্টের অনুমোদিত ব্রডকাস্টিং সংক্রান্ত সাম্প্রতিক নির্দেশমালার উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন যে, এর মাধ্যমে আর্টিষ্ট, মিউজিশিয়ান ও প্রকাশকগন ইন্টারনেট ব্যবহারের দ্বারা রয়্যালটি পাবেন। ইউটিউবের মতো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলো যে কোন কনটেন্ট আপলোডের ক্ষেত্রে দায়বদ্ধ থাকবে। এছাড়া কপিরাইট স্বত্বাধিকারীগনের আপত্তির পরিপ্রেক্ষিতে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলো কপিরাইটেড কনটেন্ট যত দ্রুত সম্ভব নিজেদের সাইট থেকে সরিয়ে নেবে।

পরে মূল প্রবন্ধের ওপর আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিন্টিং এন্ড পাবলিকেশন্স এডিটিং বিভাগের খন্ডকালীন শিক্ষক খান মাহাবুব এবং জাতীয় প্রেসক্লাবের প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক জনাব কামরুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব ড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল বলেন, বাংলাদেশ কপিরাইট আইনকে জনগনের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার জন্য কপিরাইট অফিস কর্তৃক ই-কপিরাইট সেবা চালু, কপিরাইট সংশ্লিষ্ট অভিযোগের বিষয়ে বিনামূল্যে আইনি পরামর্শ কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলোকে একটি আইনি কাঠামোর মধ্যে আনা হলে সংগীত সংশ্লিষ্ট গীতিকার, সুরকার ও কন্ঠশিল্পী এবং প্রযোজকদের অধিকার সুরক্ষা দেয়া নিশ্চিত করা যাবে। সৃজনশীল ব্যক্তিবর্গের আর্থিক ও নৈতিক অধিকার সুরক্ষার জন্য কপিরাইট আইনের যথাযথ প্রয়োগের মাধ্যমে একটি সৃজনশীল মেধাবী জাতি গঠনে তিনি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এটুআই প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান, প্রখ্যাত কন্ঠশিল্পী ফরিদা পারভিন, দিলরুবা খান, বাদশা বুলবুল, ব্যান্ডশিল্পী মাকসুদুল আলম, ইউপিএল সভাপতি মিস মাহরুক মহিউদ্দিন, নাটকের প্রযোজক ও পরিচালক এফ. জামান তাপস, বাংলাদেশ আইপি এসোসিয়েশনের সভাপতি এ্যাডভোকেট নেয়ামত হোসেন, বাংলাদেশ রাইটার্স ক্লাবের সভাপতি জনাব নুরুল হুদা এবং বেসিসের সচিবসহ বিশিষ্ট আরো অনেকে।

এবার কপিরাইট রেজিস্ট্রেশনকৃত সাংস্কৃতিক কন্টেন্ট ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে প্রকাশের মাধ্যমে স্বত্ত্বাধিকারীর কপিরাইট-স্বত্ব সুরক্ষায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি সরুপ লাইভ টেকনোলজিস লিমিটেড ও কপিরাইট রেজিস্ট্রেশন সেবা জনগনের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে ই-কপিরাইট সিস্টেম প্রনয়নে কারিগরি সহায়তা প্রদান করায় ইপসিতা কম্পিউটারস্ প্রাইভেট লিমিটেড এবং ই-কপিরাইট সিস্টেম প্রণয়নে আর্থিক ও কারিগরি সহায়তা প্রদান করায় একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম-এ তিনটি প্রতিষ্ঠান এবং কাঠের গুড়ো থেকে কয়েল খড়ি শিরোনামের বিশেষ দাহ্য জ্বালানী তৈরির তাত্ত্বিক, প্রযুক্তিক ও যান্ত্রিক সৃজনশীল উদ্ভাবনের স্বীকৃতি স্বরুপ আনোয়ারুল আজিম খানকে কপিরাইট অফিসের পক্ষ থেকে মেধাসম্পদ সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে দেশের শুদ্ধ সংগীত চর্চায় অবদান রাখার জন্য বেঙ্গল ফাউন্ডেশনকে এ সম্মাননা প্রদান করা হয়েছিল। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি