সারাদেশে একযোগে বোমা হামলা: ঢাকায় ৫ জেএমবির কারাদণ্ড

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ৩:৪৭ অপরাহ্ণ
আদালত

চৌদ্দ বছর আগে সারাদেশে একযোগে বোমা হামলার এক মামলায় নিষিদ্ধ সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদিনি বাংলাদেশ- জেএমবির পাঁচ সদস্যকে ১২ বছর সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ঢাকার আদালত। পাশপাশি আসামিদের ৩০ হাজার টাকা করে জরিমানা, আনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে।

আজ রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) ঢাকা মহানগর দুই নম্বর বিশেষ ট্রাইবুনালের বিচারক মো. আল মামুন এই রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- আবদুল্লাহ আল সুহাইল, হাবিবুর রহমান হাবিব (পলাতক), মো. মুসা ওরফে মুস্তাফিজুর রহমান ওরফে সামাদ ওরফে মিন্টু (পলাতক) মো. আবদুর রহমান মাসুদ, মো. নূরুল ইসলাম ওরফে উজ্জ্বল ওরফে ‍জুবায়ের।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. শাহাবুদ্দিন গণমাধ্যমকে আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রসঙ্গত, ২০০৫ সালের ১৭ অগাস্ট সকাল ১১টার দিকে রাজধানীর খিলক্ষেত ওভারব্রিজের কাছে রাজউক মার্কেটের সামনে জনগণের জানমালের ক্ষতিসাধনের জন্য বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায়। ওই ঘটনায় খিলক্ষেত থানার এএসআই মো. কাওসার আলম মামলা করার পর ওই বছরের ২ নভেম্বর অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। এরপর আরও দুইবার সম্পূরক অভিযোগ দেওয়া হয়। সর্বশেষ সম্পূরক অভিযোগপত্রে আবদুল্লাহ আল সুহাইলকে আসামির তালিকায় আনা হয়। দীর্ঘ শুনানি ও যুক্তিতর্ক শেষে আদালত আজ এ আদেশ দেন।

আইনজীবী মো. শাহাবুদ্দিন জানিয়েছেন, একটি হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জেএমবি নেতা আতাউর রহমান সানিও এই মামলার আসামি ছিলেন। মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়ায় তাকে এই মামলা থেকে বাদ দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, ২০০৫ সালের ১৪ নভেম্বর ঝালকাঠি জেলার সিনিয়র সহকারী জজ সোহেল আহম্মেদ ও জগন্নাথ পাঁড়ের গাড়িতে বোমা হামলা চালিয়ে তাদের হত্যা করা হয়। ওই মামলায় ২০০৭ সালের ২৯ মার্চ জেএমবির শীর্ষ নেতা শায়খ আবদুর রহমান, সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাই, আতাউর রহমান সানিসহ সাতজনের ফাঁসি কার্যকর করা হয়।