খালেদার জামিন শুনানি: একদিন আগেই সুপ্রিম কোর্টে নিরাপত্তা জোরদার

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ৫:০৬ অপরাহ্ণ

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন শুনানির একদিন আগেই সুপ্রিমকোর্ট ও এর আশপাশের এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) খালেদার জামিন আবেদনের শুনানি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

আজ বুধবার (১১ ডিসেম্বর) সকাল থেকেই সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সকাল থেকেই সুপ্রিম কোর্টের প্রতিটি প্রবেশপথ, আশপাশ ও আদালত চত্বরের অভ্যন্তরের বিভিন্ন স্থানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া আর্চওয়ে ও মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশির পর আইনজীবী, বিচারপ্রার্থী, সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্টদের আদালত চত্বরে প্রবেশ করানো হচ্ছে।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সুপ্রিম কোর্টে নিয়মিতই পুলিশ সদস্যরা থাকে। তবে যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আজ সুপ্রিম কোর্ট এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।’

এর আগে গত ২৬ নভেম্বর দুপুরে প্রেসক্লাবের দিক থেকে আসা বিএনপির নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে হঠাৎ সুপ্রিম কোর্টের সামনের সড়কে অবস্থান নেন। তখন সুপ্রিম কোর্টের সবগুলো গেট বন্ধ করে দেয়া হয়। পরে বিএনপি নেতাকর্মীদের সরানোর জন্য পুলিশ ধাওয়া দিলে তারা পালিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তায় বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

এরপর ৫ ডিসেম্বর খালেদা জিয়ার জামিন শুনানিতে তার স্বাস্থ্য প্রতিবেদন দাখিল না করা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে হৈ চৈ করেন দলটির আইনজীবীরা। একপর্যায়ে প্রধান বিচারপতিসহ ছয় বিচারক এজলাস ছেড়ে উঠে যান।