ফসলি জমিতে বাড়ি নির্মাণ বন্ধে আইন হচ্ছে

প্রতিবেদক : ল'ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ
প্রকাশিত: ৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ৩:৪৫ অপরাহ্ণ

ফসলি জমি নষ্ট করে আগামীতে আর বাড়ি বা শিল্প প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করা যাবে না এমন কথা জানিয়ে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, এ বিষয়ে আইন করা হচ্ছে।

আজ রোববার (৭ জানুয়ারি) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে উত্তরা ১৮নং সেক্টরে রাজউকের ‘উত্তরা অ্যাপার্টমেন্ট’ প্রকল্পের ‘এ’ ব্লকের ফ্ল্যাট আইডি প্রদান সংক্রান্ত ২য় লটারি অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে দেশে ১০০টি ইকোনমিক জোন তৈরি করা হয়েছে। সেখানে শিল্প প্রতিষ্ঠান বানাতে হবে। এ ছাড়া গ্রামে যদি জনসংখ্যা বৃদ্ধি পায়, তাহলে বর্তমান আবাসস্থলে উঁচু বিল্ডিং বানাতে হবে। আর ফসলি জমি নষ্ট করতে দেয়া হবে না।

তিনি আরও বলেন, রাজধানীর সব বস্তিতে উঁচু বিল্ডিং করে দেয়া হবে। প্রাথমিকভাবে ৫৫০টি ফ্ল্যাট নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। এগুলোর নির্মাণ শেষ হলে সব বস্তিবাসীকে ভাড়া ভিত্তিক উন্নত বসবাসের ব্যবস্থা করা যাবে।

মন্ত্রী জানান, ঝিলমিলে প্রাথমিকভাবে ১৪ হাজার ৫০০টি ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হচ্ছে। এ ছাড়া পূর্বাচলে ৭০ থেকে ৮০ হাজার ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হবে।

অনুষ্ঠানে রাজউক চেয়ারম্যান মো. আব্দুর রহমান বলেন, উত্তরা অ্যাপার্টমেন্টের সব রাস্তার টেন্ডার হয়ে গেছে। শিগগিরই রাস্তা নির্মাণ হয়ে যাবে। এ ছাড়া এ প্রকল্পের যোগাযোগ সহজ করার জন্য উত্তরা জসিম উদ্দিন সড়কের সঙ্গে সংযোগ দেয়া হবে। সেই সঙ্গে মিরপুরের সঙ্গেও যোগাযোগের ব্যবস্থা করা হবে।

উত্তরা ১৮ নং সেক্টরের উত্তরা অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্পের ‘এ’ ব্লকের হস্তান্তর যোগ্য ফ্লাটের দ্বিতীয়বার লটারির মাধ্যমে ২ হাজার ৬২১ জনকে আইডি বরাদ্দ দেয় রাজউক।

১৬৫৪ বর্গফুট আয়তনের এ ফ্লাটের জন্য যারা ২৬ ডিসেম্বর’ ২০১৬ এর মধ্যে চার কিস্তির টাকা পরিশোধ করেছেন রেববার তাদেরকে আইডি দেয়া হয়েছে। প্রকল্পের ‘এ’ ব্লকে ৯৬ একর জমিতে ৭৯টি ১৬ তলা ভবনে ৬ হাজার ৬৩৬টি ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য দাবিরুল ইসলাম, নূরে হাসান লিলিসহ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লাহ খন্দকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নিজস্ব প্রতিনিধি/ল’ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ ডটকম