লালমনিরহাটে আইনজীবীকে হত্যার চেষ্টা

প্রতিবেদক : ল'ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ
প্রকাশিত: ১০ অক্টোবর, ২০২০ ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ
হাসপাতালে অ্যাডভোকেট আহসান হাবিব সবুজ

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার চাপারহাটে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ির বাহিরের বৈঠকখানায় ঢুকে সিনেমা স্টাইলে আইনজীবীকে হত্যার চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা।

লালমনিরহাট জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট আহসান হাবিব সবুজকে শুক্রবার (৯ অক্টোবর) ঢাকা পঙ্গু হাসাপাতালে (৪৫) গুরুত্বর জখম অবস্থায় ভর্তি করেছেন তার স্বজনরা। চিকিৎসকারা জানিয়েছেন, তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনর্চাজ (তদন্ত) ওমর ফারুক জানান, বিষয়টি গুরুত্বের সাথে নিয়ে মাঠে পুলিশ কাজ করছে। তবে এখনো পর্যন্ত পারিবারিকভাবে কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি। তবে পুলিশ এই বিষয়ে মাঠে কাজ করছে। দুর্বৃত্তদের গ্রেফতার ও ঘটনার পেছনে প্রকৃত অর্থে কারা আছে খুঁজে বের করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও পিপি অ্যাডভোকেট আকমল হোসেন আহম্মেদ জানান, আইনজীবীর ওপর হামলায় আমরা আইনজীবীরা তীব্র প্রতিবাদ জানাই। হামলাকারী যেই হউক নিরপেক্ষ তদন্ত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। আগামীকাল রবিবার আমরা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিব। বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।

গ্রামবাসী, স্বজন ও আইনজীবীদের সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার চাপারহাটের উত্তর বত্রিশ হাজারি গ্রামের মো. মজির উদ্দিন আহম্মেদের ছেলে অ্যাডভোকেট মো. আহসান হাবিব সবুজকে ২/৩ টি মোটরসাইকেল চেপে মুখোশধারী যুবকরা বাড়ির বাহিরের বৈঠকখানায় ভেতরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতারি কোপ দেয়। সেখানেই মৃত ভেবে ফেলে রেখে চলে যায়। বাড়ির ভেতরে থাকা স্বজনরা বাহিরে বের হলে দেখতে পান আইনজীবী মো. আহসান হাবিব সবুজের রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থা বেগতিক দেখে চিকিৎসকরা বিলম্ব না করে দ্রুত রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পাঠান। সেখান থেকে রাতেই তাকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে রের্ফাড করা হয়। তার সজ্ঞাহীন অবস্থায় চিকিৎসা চলছে। এ দিকে একটি মহল বিষয়টিকে ভিন্নখাতে নিতে রাজনৈতিক খাতে দেয়ার চেষ্টা করছে বলে স্বজনরা জানান।