প্রাণের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন আফগান নারী বিচারকেরা

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ১ অক্টোবর, ২০২১ ৭:৩৩ অপরাহ্ণ

বিগত দুই দশকে সমাজে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করেছেন আফগান নারী বিচারকেরা। সফলতার সঙ্গে বিচারিক কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন। তবে আফগানিস্তানে তালেবান শাসনের পুনরুত্থানে বদলে গেছে পরিস্থিতি। এতদিন যে আসামিদের সাজা দিয়েছিলেন এসব নারী বিচারক, তাঁরা এখন কারাগার থেকে বেরিয়ে বিচারকদেরই হুমকি–ধমকি দিচ্ছেন। এর ফলে তালেবানের আমলে প্রাণের ভয়ে পালিয়ে বেড়াতে হচ্ছে দেশটির নারী বিচারকদের অনেককেই।

আফগানিস্তানের বিভিন্ন গোপন জায়গায় আশ্রয় নেওয়া অন্তত ছয়জন নারী বিচারকের সঙ্গে কথা বলতে পেরেছে যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম বিবিসি। তাঁদের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে মঙ্গলবার এক বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যমটি। এ প্রতিবেদনে তালেবানের আমলে আফগান নারী বিচারকদের প্রাণভয়ে পালিয়ে বেড়ানোর চিত্র উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিরাপত্তার জন্য আফগান নারী বিচারকদের অনেকেই নিজেদের নাম বদলে ফেলেছেন। যাতে সহজে তাঁদের সন্ধান পাওয়া না যায়। বিবিসির সঙ্গে কথা বলেছেন বিচারক মাসুমা (ছদ্মনাম)। পেশা জীবনে তিনি সফলতার সঙ্গে ধর্ষণ, হত্যা ও নির্যাতনের শতাধিক মামলায় আসামিদের সাজা দিয়েছেন।

আফগানিস্তানের একটি শহরে এতদিন নিরাপদে বসবাস করছিলেন মাসুমা। তবে তাঁর শহরে তালেবান যোদ্ধাদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার পর সেখানকার কারাগার থেকে হাজারও সাজাপ্রাপ্ত অপরাধীকে মুক্তি দেওয়া হয়। এর পরই বদলে যায় মাসুমার জীবন। তাঁর আদেশে যেসব আসামি কারাগারে গিয়েছিলেন, বেরিয়ে এসে তাঁরা মাসুমাকে হত্যার হুমকি দিতে শুরু করেন। অপরিচিত নম্বর থেকে হুমকিসহ ক্ষুদে বার্তায় ভরে ওঠে তাঁর মুঠোফোন।

মাসুমাসহ ছয়জন আফগান নারী বিচারকের সঙ্গে কথা বলেছে বিবিসি। তালেবানের আমলে তাঁদের সবাই হত্যার হুমকি পেয়েছেন। দেশটিতে তালেবানের ক্ষমতা দখলের আগে স্ত্রী হত্যার দায়ে যাদের সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছিলেন, এখন তাঁরা কারাগার থেকে বেরিয়ে এসে হত্যার হুমকি দিচ্ছেন এসব নারী বিচারকদের।