প্রচণ্ড গরমে এজলাসে জ্ঞান হারালেন বিচারক

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ২৫ মে, ২০১৯ ১২:৪৪ অপরাহ্ণ

আদালত চলাকালে অত্যধিক গরমে এজলাসে জ্ঞান হারিয়ে পড়ে গেলেন বিচারক কে এম আলমগীর হোসাইন। ঝিনাইদহ আদালতে গত বুধবার (২২ মে) এ ঘটনা ঘটেছে।

আদালত সংশ্লিষ্টরা জানান, বুধবার সকালে একটা মামলার রায় লেখার সময় ফ্যান বন্ধ ছিল। রায় লেখা শেষে আদালতে এজলাসে উঠেন বিচারক। অত্যধিক গরমের মধ্যে এজলাসে দীর্ঘক্ষণ অবস্থান করায় দুপুর দেড়টার দিকে জ্ঞান হারিয়ে পড়ে যান তিনি। এ সময় জিপি, আইনজীবী ও আদালতের কর্মীরা তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে ঘন্টাখানেক পর তার জ্ঞান ফিরে আসে।

বিচারক কে এম আলমগীর হোসাইন জানান, বুধবার সকাল থেকে তিনি একটি মামলার রায় লিখছিলেন। রায় লেখা শেষে তিনি এজলাসে ওঠেন। এদিন অনেক গরম ছিল। এছাড়া মাথার উপর ফ্যান ছিল না। একপর্যায়ে তিনি অসুস্থ বোধ করেন এবং জ্ঞান হারিয়ে আসন থেকে পড়ে যান।

আদালতের কর্মীরা জানান, এজলাসে বিচারকের মাথার উপর কোন ফ্যান নেই। পাশে ফ্যান রয়েছে। ওই ফ্যান ছাড়লে বাতাসে কাগজপত্র উড়ে যায় এবং শুনানিতে বক্তব্য ভালো বোঝা যায় না। এছাড়া আদালত কক্ষগুলোও থাকে আবদ্ধ। এতে চরম গরম অনুভব হয় এবং অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েন।

সংশ্লিষ্টরা বলেন, বিচারকদেরকে কালো কোট, কালো গাউন গায়ে দিয়ে ও গলায় ব্যান্ড পড়ে বিচার কাজ করতে হয়। এই পোশাকে বায়ু চলাচলের সুবিধা না থাকায় বিচারকরা গরমে কষ্ট করেই কাজ করে যান। আদালত কক্ষে এসির ব্যবস্থা থাকলে তাদের কাজ করার ক্ষেত্রে খানিকটা সুবিধা হতো। সূত্র : রাইজিংবিডি