‘আইনজীবী’,‘ হুজুর’ ও ‘বিদ্যুৎমিস্ত্রির’ ছদ্মবেশে ইয়াবা চালান ধরল র‍্যাব

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ১ জুন, ২০১৯ ৪:৩২ অপরাহ্ণ

মাদক ব্যবসায়ীকে ধরতে ‘আইনজীবী’,‘ হুজুর’ ও ‘বিদ্যুৎমিস্ত্রির’ ছদ্মবেশ ধারণ করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-১৪। এ সময় ছোট ছোট প্লাস্টিকের প্যাকেটে ৩ হাজার ৮৪০টি ইয়াবাসহ এক ব্যক্তিকে আটক করেছে তারা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের উত্তর পৈরতলা এলাকা থেকে শাকিল খন্দকার নামের ওই ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। র‌্যাবের দাবি, শাকিল এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী।

আটক করা শাকিল উত্তর পৈরতলা এলাকার জানু মিয়া খন্দকারের ছেলে।

গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত পৌনে একটার দিকে র‌্যাব-১৪–এর ভৈরব ক্যাম্পের সদস্যরা শাকিল খন্দকারকে আটক করলেও পরদিন শুক্রবার র‍্যাব এ তথ্য প্রকাশ করে।

র‍্যাব-১৪–এর ভৈরব ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিউদ্দিন মোহাম্মদ যোবায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,  ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের উত্তর পৈরতলা এলাকায় ইয়াবার একটি বড় চালান ঢাকা থেকে আসবে বলে জানতে পারেন তাঁরা। মাদক ব্যবসায়ীর অবস্থান জানতে র‌্যাব-১৪–এর ১৬ জন সদস্য হুজুর, বিদ্যুৎমিস্ত্রি ও আইনজীবীর ছদ্মবেশ ধারণ করে উত্তর পৈরতলা এলাকায় অভিযান চালান। ওই সময় ওই এলাকার বসতবাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে শাকিল খন্দকারকে আটক করা হয়। শপিং ব্যাগে তল্লাশি করে ছোট ছোট প্লাস্টিকের প্যাকেটে ৩ হাজার ৮৪০টি ইয়াবা জব্দ করা হয়। এর আনুমানিক বাজারমূল্য ১৫ লাখ ৩৬ হাজার টাকা।

রফিউদ্দিন মোহাম্মদ যোবায়ের জানান, তাঁর নেতৃত্বে কোম্পানির জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক চন্দন দেবনাথসহ ১৬ সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, এটি এ বছরের ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় র‌্যাবের সবচেয়ে বড় অভিযান। আটক শাকিলের বিরুদ্ধে মামলা করে সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। শাকিল একজন পাইকারি মাদক ব্যবসায়ী। বিভিন্ন জায়গায় ১০০০, ৫০০ ও ২০০ ইয়াবা চালান দিয়ে থাকেন তিনি।