নোয়াখালী আদালতের পেশকারসহ ৩ জনকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ২০ আগস্ট, ২০১৯ ১:০১ অপরাহ্ণ
হাইকোর্ট

অবৈধ সম্পদ অর্জন ও অর্থ পাচার মামলায় নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের জুডিশিয়াল পেশকার নাজমুন নাহারসহ তিনজনকে চার সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণ করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। অন্য দুজন হলেন- বিজন ভৌমিক ও আফরোজা আক্তার।

এ সংক্রান্ত মামলার শুনানি নিয়ে সোমবার (১৯ আগস্ট) হাইকোর্টের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এস এম কুদ্দুস জামানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আসামিপক্ষে ছিলেন হাসিনা জাহান হাজারী। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. আসিফ হাসান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক সাংবাদিকদের বলেন, আদালত তাদের জামিন না দিয়ে চার সপ্তাহের মধ্যে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে নির্দেশ দেন।

আইনজীবীরা জানান, অবৈধ সম্পদ অর্জন ও অর্থ পাচার মামলায় ৫ আগস্ট দুর্নীতি দমন কমিশনের নোয়াখালীর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সুবেল আহমেদ (দুদক) নোয়াখালী জেলা জজ আদালতের নাজির আলমগীর হোসেনসহ চার জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এরমধ্যে নাজমুন নাহার তার স্ত্রী এবং আফরোজা আক্তার তার বোন।

ওইদিনই দুদকের হাতে গ্রেফতার হন আলমগীর। পরে অবশ্য ওইদিনই নোয়াখালীর আদালত তাকে জামিন দেন।

মামলার এফআইআরে বলা হয়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত মোট ৭ কোটি ১৭ লাখ ৩৫ হাজার ৬২৫ টাকার সম্পত্তি অর্জন করেন। অর্জনকৃত ওই সম্পদ ভোগদখল রেখে প্রতারণামূলকভাবে মানি লন্ডারিং-সম্পৃক্ত অপরাধ, ঘুষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে লব্ধ অর্থের উৎস গোপনের লক্ষ্যে হেবা দলিল সম্পাদন, দলিলে জাল জালিয়াতি এবং বেনামে সম্পদ অর্জন এবং ভুয়া প্রতিষ্ঠান মেসার্স ঐশী ট্রেডার্সের ব্যবসার আড়ালে মোট ২৭ কোটি ৮২ লাখ ৭২ হাজার ৯৬৬ টাকা অবৈধভাবে স্থানান্তর, হস্তান্তর ও রূপান্তর করেছেন।

এই মামলায় বাকি তিন আসামি হাইকোর্টে জামিন চেয়ে আবেদন করেছিলেন।