দুই যুবলীগ নেতার ‘ক্রসফায়ার’ চাওয়ায় আইনজীবী বরখাস্ত

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: 31 October, 2019 12:28 pm
অ্যাডভোকেট মো. আক্তারুজ্জামান বাহাদুর

পেশাগত অসদাচরণ ও বরগুনা জেলা যুবলীগের দুই নেতার ‘ক্রসফায়ার’ চেয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ায় বরগুনা জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর মো. আক্তারুজ্জামান বাহাদুরকে জেলা আইনজীবী সমিতি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির এক সভায় বুধবার (৩০ অক্টোবর) বিকালে আক্তারুজ্জামান বাহাদুরকে সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্ত দেয় বরগুনা জেলা আইনজীবী সমিতি।

বরগুনা জেলা আইনজীবী সমিতির যুগ্ম সম্পাদক মো. মনিরুল ইসলাম মনির বলেন, ‘বরগুনা জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুল আহসান মহারাজ এবং জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সাহাবুদ্দীন সাবুর ক্রসফায়ার চেয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন আক্তারুজ্জামান বাহাদুর। পরে এ বিষয়ে কামরুল আহসান মহারাজ সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করার পাশাপাশি জেলা আইনজীবী সমিতিতে লিখিত অভিযোগ দেন। লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর আক্তারুজ্জামান বাহাদুরের কাছে এ বিষয়ে একাধিকবার জবাব চায় জেলা আইনজীবী সমিতি। কিন্তু এতে তিনি কোনও জবাব দেননি। জবাব না দেওয়ায় জেলা আইনজীবী সমিতি গঠনতান্ত্রিক নিয়ম অনুযায়ী আক্তারুজ্জামান বাহাদুরের সদস্য পদ স্থগিত করে। সেই সঙ্গে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।’

বরগুনা জেলা আইনজীবী সমিতি

জেলা আইনজীবী সমিতির একাধিক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, আক্তারুজ্জামান বাহাদুর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ বিভিন্নভাবে আইনজীবী সমিতির সদস্য ও বরগুনার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করে আসছিলেন। কিন্তু বাহাদুর ক্ষমতাসীন দলের মদদপুষ্ট হওয়ায় কেউই মুখ খুলতে পারেনি। এবার দলের কর্মীদের নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাস দিতে গিয়ে নিজেই ফেঁসে গেলেন।

এবিষয়ে আক্তারুজ্জামান বাহাদুরের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। এমনকি আইনজীবী সমিতি ও তার ব্যক্তিগত ল চেম্বারে গিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, আক্তারুজ্জামান বাহাদুর এর আগে সাংবাদিকদের নিয়েও কটূক্তি করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন। তখন জেলা আইনজীবী সমিতিতে আক্তারুজ্জামান বাহাদুরের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেয় বরগুনা প্রেস ক্লাব। ওই সময় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলেও এবার যুবলীগের দুই নেতার ক্রসফায়ার চেয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ায় তাকে বরখাস্ত করা হয়।