দিল্লির তিস হাজারি আদালত চত্বরে পুলিশ-আইনজীবী সংঘর্ষে আহত ২

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: 3 November, 2019 11:16 am
দিল্লির তিস হাজারি আদালত চত্বরে পুলিশ-আইনজীবী সংঘর্ষ

গাড়ি রাখাকে কেন্দ্র করে ঝগড়ার শুরু। সেখান থেকে পুলিশের সঙ্গে আইনজীবীদের সংঘর্ষে ধুন্ধুমার বাধল দিল্লির তিস হাজারি আদালত চত্বরে। আগুনে পুড়ল পুলিশের একটি গাড়ি। ভাঙচুর চলেছে অন্তত ৮টি গাড়িতে। দু’দলের সংঘর্ষে পুলিশের ছোড়া গুলিতে একজন আইনজীবীসহ এক সাংবাদিকও জখম হয়েছেন বলে অভিযোগ।

পুরনো দিল্লির ওই আদালত চত্বরে শনিবার (২ নভেম্বর) বিকেল নাগাদ ঘটনাটি ঘটে। পুলিশের গুলিতে জখম আইনজীবীকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে বলে খবর।

দিল্লিতে পার্কিং বা গাড়ি রাখার জায়গা নিয়ে সমস্যা বহু দিনের। সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টও বলেছে, এটি রাজধানীর সবচেয়ে বড় মাথাব্যথার কারণ। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, এ দিন তিস হাজারি কোর্ট চত্বরে গাড়ি রাখাকে কেন্দ্র করে এক পুলিশকর্মীর সঙ্গে বচসা বাধে এক আইনজীবীর। ওই আইনজীবীকে পুলিশ হেফাজতে নিলে তাঁর সহকর্মীরা তাঁকে ছাড়ানোর চেষ্টা করেন।

আইনজীবীদের অভিযোগ, দু’পক্ষের বচসা চলাকালীন গুলি চালায় পুলিশ। ক্ষেপে ওঠেন আইনজীবীরাও। যদিও গুলি চালানোর বিষয়টি অস্বীকার করেছে পুলিশ। তারা জানিয়েছে, আইনজীবীরা পুলিশের একটি গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়। ধোঁয়ায় ঢেকে যায় চত্বর। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে দমকলের ১০টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। পৌঁছে যান সাংবাদিকেরাও। আদালত ভবনের ভিতরে ঢুকে গিয়ে ব্যারিকেড গড়ে তোলেন আইনজীবীরা। সাংবাদিক ও পুলিশকে সেখানে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে পুলিশও কোর্ট চত্বরের একাধিক প্রবেশদ্বার বন্ধ করে দেয়।

ক্ষুব্ধ এক আইনজীবী বলেন, ‘‘আমরাও আইন জানি। পুলিশ আমাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করলে কোনও ভাবেই তা মানব না।’’

এই ঘটনার প্রতিবাদে দিল্লির সমস্ত জেলা আদালতের আইনজীবীরা সোমবার ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা