করোনার মহামারিতেও ঢাকায় নারী ও শিশু নির্যাতনের দুই শতাধিক মামলা

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ৮ জুন, ২০২০ ১১:৩২ অপরাহ্ণ
নারী নির্যাতন

করোনাভাইরাসের মহামারিতে থমকে গেছে বিশ্ব। থমকে গেছে দেশ। এই মহামারি রোধে ৬৬ দিন ছিল সাধারণ ছুটি। এ সময়ে অনেককে থাকতে হয়েছে নিজ পরিবার-পরিজনের সাথে। এ পরিস্থিতিতেও থেমে নেই নারী ও শিশু নির্যাতন।

করোনাকালে ঢাকা শহরে নারী ও শিশু নির্যাতনের অভিযোগে মামলা হয়েছে ২০০টি। এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ ধর্ষণ, তারপর যৌতুক ও অপহরণের।

ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখার হিসাব মতে, গত ২৬ মার্চ থেকে ৭ জুন পর্যন্ত ঢাকা মহানগরের ৫০টি থানায় নারী ও শিশু নির্যাতনের অভিযোগের ২০০টি মামলার তথ্য পাওয়া গেছে।

এগুলোর মধ্যে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে ৫৮টি, গণধর্ষণের আটটি, ধর্ষণচেষ্টার ১৬টি, যৌতুকের দাবিতে নির্যাতনে অভিযোগে হয়েছে ৫৩টি, অপহরণের অভিযোগে ৩৭টি, শ্লীলতাহানির অভিযোগে ১৯টি, শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগে ৯টি মামলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৪ জুন মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির তথ্যমতে, মার্চ, এপ্রিল ও মে- এই তিন মাসে সারাদেশে ৪৮০ জন নারী ও শিশু বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। তাদের মধ্যে ২৬৭ জন নারী ও ২১৩ জন শিশু। এর মধ্যে ২০৬ ঘটনায় ৯০ নারী ও ১১৬ শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছেন।