বিচারিক এখতিয়ার বাড়িয়ে সংশোধিত সিভিল কোর্টস অ্যাক্ট অনুমোদন

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি, ২০২১ ১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ
আইন ও আদালত

দেওয়ানি মামলা বিচারের ক্ষেত্রে নিম্ন আদালতের বিচারকদের আর্থিক বিচারিক এখতিয়ার বাড়িয়ে আইন সংশোধনের প্রস্তাবে সায় দিয়েছে সরকার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার (১১ জানুয়ারি) মন্ত্রিসভার ভার্চুয়াল বৈঠকে ‘দ্য সিভিল কোর্টস (সংশোধন) অ্যাক্ট, ২০২১’ এর খসড়ার নীতিগত ও চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়।

সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সচিবালয়ে এক ব্রিফিংয়ে বলেন, এই সংশোধনীর মাধ্যমে সিভিল কোর্টগুলোর বিচারিক এখতিয়ার বাড়ানো হচ্ছে।

একজন সহকারী জজ এতদিন দুই লাখ টাকা পর্যন্ত মূল্যমানের (সম্পত্তি বা অর্থে যে অংকের টাকা নিয়ে বিরোধ) মামলা নিষ্পত্তি করতে পারতেন। এখন সেই এখতিয়ার বাড়িয়ে ১৫ লাখ টাকা করার কথা বলা হয়েছে সংশোধিত আইনের খসড়ায়।

একইভাবে জ্যেষ্ঠ সহকারী জজের বিচারিক এখতিয়ার চার লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২৫ লাখ টাকা এবং আপিল শুনানির ক্ষেত্রে জেলা জজের এখতিয়ার পাঁচ লাখ টাকা থেকে বাড়িয়ে পাঁচ কোটি টাকা করা হচ্ছে বলে জানান সচিব।

তিনি বলেন, পাঁচ কোটি টাকার কম মূল্যমানের কোনো মামলায় যুগ্ম-জেলা জজ আদালতের আদেশের বিরুদ্ধে কোনো আপিল বা কার্যক্রম হাই কোর্ট বিভাগে বিচারাধীন থাকলে তা জেলা জজ আদালতে স্থানান্তরের বিধান রাখা হয়েছে খসড়ায়।

আগে পাঁচ কোটি টাকার কোনো আপিল হলে হাই কোর্টে যাওয়া লাগলেও আইন সংশোধন হলে জেলা জজ সেই আপিল শুনানি করতে পারবেন বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

তিনি জানান, ২০১৬ সালে আইন করে সিভিল কোর্টগুলোর বিচারিক এখতিয়ার বাড়ানো হলেও হাই কোর্ট তা স্থগিত করে দেয়। ফলে নতুন করে আইন সংশোধন করা হচ্ছে।

সরকার ২০১৬ সালেও টাকার অংকে বিচারিক এখতিয়ার একই পরিমাণ বাড়িয়ে আইন সংশোধন করেছিল। কিন্তু ওই গেজেটের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে একটি রিট আবেদন হলে হাই কোর্টের একটি বেঞ্চ সরকারের ওই গেজেটের কার্যকারিতা স্থগিত করে দেয়।