মেহেরপুরে মিথ্যা মামলা করায় বাদীকে কারাদণ্ড

মিথ্যা ও হয়রানি মূলক মামলা দায়ের করায় বাদীকে এক মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং ১ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৭ দিনের কারাদণ্ডের আদেশ প্রদান করেছেন মেহেরপুরের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট-১ম আদালত।

আজ রবিবার (২৭ নভেম্বর) মেহেরপুরের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এস, এম, শরিয়ত উল্লাহ্ এর আদালত এই আদেশ প্রদান করেন।

মেহেরপুরের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো: জাহাঙ্গীর আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। আদালত সূত্রে জানা যায়, আসামি মো: আব্দুল গাফফারের বিরুদ্ধে প্রতারণা, অর্থ আত্মসাৎ এবং প্রাণনাশের হুমকি প্রদানের অভিযোগে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলাধীন বাওট গ্রামের জহির উদ্দিনের ছেলে মো. আজিজুল হকের ছেলে মো: গোলাম কিবরিয়া বাদী হয়ে তার চাচাতো ভাই মো: আব্দুল গাফফার এর বিরুদ্ধে ২০২০ সালে একটি ফৌজদারি মামলা দায়ের করেন। আসামি মো: আব্দুল গাফফার বাদীর নিকট ১ শতক জমি বিক্রয় বাবদ ৯৫ হাজার টাকা নিলেও পরবর্তীতে জমি রেজিস্ট্রি করে দেননি বলে তিনি অভিযোগ করেন। পরবর্তীতে বাদী জমি বা টাকা ফেরত চাইলে আসামি জমি বা টাকা দেবেনা মর্মে দাবি করেন এবং প্রাণ নাশের হুমকি দেন বলে অভিযোগে আরও উল্লেখ করেন।

কিন্তু বিচার শেষে আদালতের কাছে স্পষ্ট হয় যে, বাদীর অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও হয়রানিমূলক। জালিয়াতির মাধ্যমে বায়নানামা সৃষ্টি করে এবং মিথ্যা বর্ণনায় আসামিকে হয়রানের উদ্দেশ্যে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে মর্মে আদালতের নিকট প্রমাণিত হয়। ফলে আদালত আসামী বাওট গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে মো: আব্দুল গাফফারকে খালাস প্রদান করেন। একই সাথে মিথ্যা মামলা করায় বাদী মো: গোলাম কিবরিয়াকে এক মাসের কারাদণ্ড দেন। এর পাশাপশি ১,০০০ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৭ দিনের কারাদন্ডের রায় প্রদান করেন আদালত। ফৌজদারি কার্যবিধির ২৫০ ধারা অনুযায়ী মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করায় বাদীকে এই সাজা প্রদান করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।