জাতীয় ও স্থানীয় নির্বাচনে মুক্তিযোদ্ধা কোটা চেয়ে রিট

প্রতিবেদক : ল'ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ
প্রকাশিত: ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ৩:০৪ অপরাহ্ণ
বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালত

জাতীয় সংসদ ও স্থানীয় সরকার নির্বাচনে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ১০ শতাংশ কোটা নির্ধারণের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। রিটে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ও আইন মন্ত্রণালয়ের সচিবকে বিবাদী করা হয়েছে।

আজ বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় বড়ুরা শিক্ষা এবং মানবকল্যাণ ট্রাস্টের পক্ষে রিটটি দায়ের করেন আইনজীবী আরিফুর রহমান।

রিট আবেদনে জাতীয় সংসদসহ বিভিন্ন স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ১০ শতাংশ কোটা সংরক্ষণে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে। পাশাপাশি এ রুল বিবেচনাধীন থাকা অবস্থায় অবিলম্বে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে নির্দেশনা জারির আবেদন করা হয়েছে

পরে আইনজীবী আরিফুর রহমান বলেন, ‘১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে মুক্তিযোদ্ধারা নিঃশর্তভাবে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। জীবন বাজি রেখে তারা দেশকে স্বাধীন করেছেন। অথচ জাতীয় সংসদসহ স্থানীয় সরকার নির্বাচনে তাদের উল্লেখযোগ্য কোনও প্রতিনিধি নেই। অথচ নারীদের জন্য সংসদ ও স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কোটা রয়েছে। তাই মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য কোটার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলে রিটটি দায়ের করছি।’

হাইকোর্টের বিচারপতি মো. আসফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের বেঞ্চে আগামী রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) এ রিটের শুনানি হতে পারে বলেও জানান এই আইনজীবী।