একচুয়াল কোর্টে প্রচলিত পোষাকে ফিরছেন বিচারক-আইনজীবীরা

প্রতিবেদক : ল'ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ
প্রকাশিত: ৩ মার্চ, ২০২২ ৮:১৪ অপরাহ্ণ
বিচারক-আইনজীবীর পোষাক (প্রতীকী ছবি)

আগামী রোববার থেকে সুপ্রিম কোর্টে ‘একচুয়াল’ কোর্ট ফিরছে। সর্বোচ্চ আদালতের উভয় বিভাগে (আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগ) বিচারপতি এবং আইনজীবীদের মামলা শুনানিকালে পরিধেয় পোষাক সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী বিচারক-আইনজীবীদের প্রচলিত পোষাক পরতে হবে।

আজ বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদেশক্রমে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করেছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন।

সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. বজলুর রহমান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের বিচারপতিদের শারীরিক উপস্থিতিতে মামলা শুনানিকালে ক্ষেত্রমত টার্নড আপ সাদা কলার ও সাদা ব্যান্ডসহ সাদা শার্ট ও প্যান্ট/শাড়ি বা সালোয়ার কামিজ ও জাজেজ কোট এবং গাউন পরিধান করতে হবে।

এছাড়া সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীদের শারীরিক উপস্থিতিতে মামলা শুনানিকালে ক্ষেত্রমত টার্নড আপ সাদা কলার ও সাদা ব্যান্ডসহ সাদা শার্ট ও প্যান্ট/শাড়ি বা সালোয়ার কামিজ ও কালো কোট/শেরওয়ানী এবং গাউন পরিধান করতে হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

আগামী রোববার (৬ মার্চ) থেকে এ নির্দেশনা কার্যকর হবে।

প্রসঙ্গত, আগামী রোববার থেকে (৬ মার্চ) থেকে সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের বিচারিক কার্যক্রম শারীরিক উপস্থিতিতে পরিচালিত হবে। প্রধান বিচারপতি সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ বিচারপতিদের সাথে আলোচনাক্রমে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন। এক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে অনুসরণ করতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে সুপ্রিম কোর্টে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে বিচারিক কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছিল। এপ্রেক্ষিতে গত ২০ জানুয়ারি থেকে ভার্চুয়াল কোর্টে শুনানিকালে বিচারপতি ও আইনজীবীদের গাউন পরার বাধ্যবাধকতা তুলে নেওয়া হয়েছিল।

সেসময় প্রধান বিচারপতির আদেশক্রমে জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের বিচারপতিরা ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে মামলা শুনানিকালীন ক্ষেত্রমত টার্নড আপ সাদা কলার ও সাদা ব্যান্ডসহ সাদা শার্ট ও প্যান্ট/শাড়ি বা সালোয়ার কামিজ ও জাজেস কোট পরিধান করতে বলা হয়।

অন্যদিকে আইনজীবীদের মামলা শুনানিকালীন ক্ষেত্রমত টার্নড আপ সাদা কলার ও সাদা ব্যান্ডসহ সাদা শার্ট ও প্যান্ট/শাড়ি বা সালোয়ার কামিজ ও কালো কোট/শেরওয়ানী পরিধানের নির্দেশনা দেওয়া হয়।

উভয় ক্ষেত্রে গাউন পরিধানের বাধ্যবাধকতা শিথিল করার ফলে প্রচলিত নিয়মে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ও আইনজীবীদের গাউন পরার প্রয়োজনীয়তা ছিল না।