অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ, সংসদ ভেঙে দেওয়ার পরামর্শ ইমরান খানের

প্রতিবেদক : ল'ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ
প্রকাশিত: ৩ এপ্রিল, ২০২২ ৩:৩০ অপরাহ্ণ
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দেশটির প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভিকে সংসদ ভেঙে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। দেশটির জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই এ ঘোষণা আসে।

আজ রোববার (৩ এপ্রিল) জাতির উদ্দেশ্যে এক ভাষণে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কথা বলেন। তিনি জানান, তিনি রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভিকে সংসদ ভেঙে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

এদিকে জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার কাসিম সুরির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংসদ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী ইমরানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ করে দেওয়া হয়। বিষয়টিকে ডেপুটি স্পিকার সুরি, সংবিধানের ৫ নং অনুচ্ছেদের বিরোধী বলে অভিহিত করেন।

অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ হওয়ায় জাতিকে অভিনন্দন জানিয়ে ইমরান বলেন, “শাসন পরিবর্তনের প্রচেষ্টা (এবং) বিদেশি ষড়যন্ত্রকে ডেপুটি স্পিকার প্রত্যাখ্যান করেছেন।”

তিনি আরও জানান, উদ্বিগ্ন অনেকেই তাকে মেসেজ দিয়েছেন। জাতির সামনে ‘বিশ্বাসঘাতকতা’ করা হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। সেই সঙ্গে তিনি বলেন, “আমি বলতে চাই, আপনারা চিন্তা করবেন না; পাকিস্তানের পরিস্থিতি আল্লাহ দেখছেন।”

ভাষণে তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতিকে সংসদ ভেঙে দেওয়ার লিখিত পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। তার মতে, গণতন্ত্রে বিশ্বাসীদের জনগণের কাছে যেতে হবে এবং এরপর নির্বাচন হওয়া উচিত, যেনো জনগণ সিদ্ধান্ত নিতে পারে তারা কাকে ক্ষমতায় চায়।

আইন প্রণেতাদের ভোট ‘কিনতে’ যেই ‘কোটি কোটি টাকা’ ব্যয় করেছেন বিরোধীরা, তা সম্পূর্ণই বৃথা যাবে বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান। সেই সঙ্গে, যারা টাকা নিয়েছেন তাদেরকে সেই টাকা এতিমখানা ও দরিদ্রদের মাঝে দান করে দেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

তিনি বলেন, “নির্বাচনের প্রস্তুতি নিন। দেশের ভবিষ্যৎ কী হবে তা কোনো দুর্নীতিবাজ শক্তি নির্ধারণ করবে না। সংসদ ভেঙে দেওয়া হলে পরবর্তী নির্বাচন ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রক্রিয়া শুরু হবে।”

এর কিছুক্ষণ পরেই, তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী জানান, সংবিধানের ৫৮ নং অনুচ্ছেদের অধীনে জাতীয় পরিষদ (সংসদ) ভেঙে দেওয়ার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর লিখিত পরামর্শ রাষ্ট্রপতি ড. আরিফ আলভির কাছে পাঠানো হয়েছে।