নারী সহকর্মীকে অশালীন ক্ষুদে বার্তা-পর্নো ভিডিও পাঠানো বিচারকের পদত্যাগ

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১:০৫ অপরাহ্ণ
বিচারক জোনাথন ডারহাম হল কিউসি

ব্রাডফোর্ড ক্রাউন কোর্টের ৬৭ বছর বয়সী বিচারক জোনাথন ডারহাম হল কিউসি। দু’বার বিয়ে করেছেন। দু’সন্তানের জনক। কিন্তু তিনি তার আদালতে দায়িত্ব পালনকারী এক নারী সহকর্মীকে অশালীন টেক্সট ম্যাসেজ ও পর্নো ভিডিও পাঠিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ইতোমধ্যে তার বিরুদ্ধে তদন্ত করছে জুডিশিয়াল কনডাক্ট ইনভেস্টিগেশনস অফিস (জেসিআইও)। এর প্রেক্ষিতে তিনি পদত্যাগে সম্মত হয়েছেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডেইলি মেইল। এতে বলা হয়, ব্রাডফোর্ড ক্রাউন কোর্টে সাক্ষাতের পর ওই নারী সহকর্মীকে এক্স-রেটেড বা অশালীন বার্তা পাঠাতে থাকেন বিচারক ডারহাম-হল।

এমন ডজন ডজন ম্যাসেজ পাঠিয়েছেন তিনি। বছরে ১৫১৪৯৭ পাউন্ড বেতন ভাতা পাওয়া এই বিচারক এখানেই থেমে থাকেন নি। তিনি ওই নারী সহকর্মীকে পাঠিয়েছেন পর্নো ভিডিও। অনলাইন দ্য সানকে উদ্ধৃত করে রিপোর্টে বলা হয়েছে, এসব তথ্য সামনে আসার পর তিনি পদত্যাগে রাজি হয়েছেন। এখন তদন্ত করে দেখা হচ্ছে তিনি অশালীন এসব টেক্সট ম্যাসেজ এবং ছবি পাঠিয়ে মানদণ্ড লঙ্ঘন করেছেন কিনা।

অভিযোগে বলা হয়েছে, সম্পর্ক যখন ঘনিষ্ঠতার দিকে যায় তখন বিচারক ডারহাম-হলের ওয়েস্ট ইয়র্কশায়ারের কিগলিতে অবস্থিত তার বাড়িতে যাওয়া আসা করতে থাকেন ওই নারী সহকর্মী। ২০১৭ সালের এপ্রিলে অসদাচরণের অভিযোগে ওই বিচারকের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া যায়।