হেল্পলাইন নাম্বারে ফোন: জামিনের একমাস পর যেভাবে মুক্তি পেলেন কিশোর

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল, ২০২০ ৫:৩১ পূর্বাহ্ণ
জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থা

সরকারি আইনগত সহায়তায় জাতীয় হেল্পলাইন ‘১৬৪৩০’ নাম্বারে ফোন করে জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থার সহায়তায় জামিন প্রাপ্তির একমাস পর গাজীপুর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র থেকে মুক্তি পেল ১৪ বছরের এক কিশোর।

এই সংবাদটির বিস্তারিত তথ্য দিয়ে সংস্থার ফেইসবুক পেইজে বলা হয়, ‘হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলা থেকে দিলারা খাতুন ‘১৬৪৩০’ নাম্বারে ফোন দিয়ে কান্না বিজড়িত কন্ঠে জানান যে, তার ১৪ বছর বয়সী সন্তান জীবন মিয়া গাজীপুর জেলে (গাজীপুর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র) আটক আছে। তিনি আরও বলেন যে, দুই মাস আগে জামিন পাওয়া সত্ত্বেও তার ছেলে এখনও কারাগার থেকে বের হতে পারছে না; তার ছেলেটি অসুস্থ, ছেলের চিন্তায় সে দিশেহারা।

দুইমাস আগে জামিন পেয়েছে অথচ এখনও কিশোরটি আটক, বিষয়টি অস্বাভাবিক এবং আইন বহির্ভূত বিবেচনায় প্রকৃত ঘটনা জানার জন্য তাৎক্ষণিকভাবে কলসেন্টার কার্যক্রম মনিটরিং এর দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী পরিচালক (সিনিয়র সহকারী জজ) মাসুদা ইয়াসমিন হবিগঞ্জ জেলার লিগ্যাল এইড অফিসার এর সাথে যোগাযোগ করেন এবং তিনি দায়িত্বপ্রাপ্ত ম্যাজিস্ট্রেটের সাথেও এ বিষয়ে যোগাযোগ করেন।

পরবর্তীতে জানা যায় যে, কিশোর ছেলেটির কাস্টডি ওয়ারেন্টে করণিক ভুলবশত মামলার নাম্বার ভুল হয়েছিল এবং বিগত ১১-০৩-২০২০ তারিখে জীবন মিয়া শিশু আদালত থেকে জামিনে মুক্তি আদেশ পায় এবং সংশ্লিষ্ট জিআরও কাস্টডি ওয়ারেন্টে ভুলের বিষয়টি দেখে সংশোধন করে দেন। সংশোধিত কাগজাদি পাঠানো হলেও করোনা পরিস্থিতিতে গাজীপুর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র জামিন সংক্রান্ত কাগজাদি পায়নি।

কিশোরটি জামিন প্রাপ্তির এক মাস পরেও জামিনে মুক্তি পায়নি বিষয়টি সংস্থা থেকে জেনে হবিগঞ্জ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত এর জিআরও শাখা থেকে গাজীপুরের কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে যোগাযোগ করা হয় এবং তারা পুনরায় একটি হার্ডকপি জীবন মিয়ার আইনজীবীর কাছে প্রদান করে।

১৯ এপ্রিল তারিখে কিশোর জীবন মিয়ার পিতা এবং আইনজীবী সমস্ত কাগজপত্র নিয়ে গাজীপুর উন্নয়ন কেন্দ্রে যাবার পর পুনরায় বাধাগ্রস্থ হলে তারা কলসেন্টারে ফোন করে এবং কলসেন্টার থেকে এ বিষয়ে গাজীপুর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ক এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা কাগজপত্র বুঝে নেয়। অবশেষে জামিন প্রাপ্তির প্রায় একমাস পর মুক্তি মিলে কিশোর জীবন মিয়ার।’

উল্লেখ, করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে জরুরি আইনি পরামর্শ ও সহায়তার জন্য আইন মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থার পক্ষ থেকে একটি হেল্পলাইন নাম্বার চালু করা হয়েছে। ১৬৪৩০ নম্বরের এই হেল্পলাইনে ফোন করা যাবে ২৪ ঘন্টা এবং এই সেবা পাওয়া যাবে বিনামূল্যে।

: ল’ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ ডট কম ডেস্ক রিপোর্ট