এটি প্রধানমন্ত্রীর প্রতিহিংসার রায়: রিজভী

প্রতিবেদক : ল'ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ
প্রকাশিত: ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ৩:২৭ অপরাহ্ণ
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী

দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়ার সাজাকে সরকারের এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিহিংসা রায় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আজ বৃহস্পতিবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) খালেদা জিয়ার ৫ বছরের কারাদণ্ডের পর তাৎক্ষণিক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টার দিকে রাজধানীর বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ আদালতে বিএনপি চেয়ারপসনের কারাদণ্ডের ঘোষণার তাৎক্ষণিক এই প্রতিক্রিয়া জানান দলটির যুগ্ম মহসাচিব রুহুল কবির রিজভী।

নয়াপল্টনে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “এই রায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিহিংসা পূরণের রায়, গণতন্ত্রকে ধুয়ে মুছে একদলীয় শাসন প্রতিষ্ঠার করার জন্য এই রায়। গণতন্ত্রকে নিশ্চিন্ন করার জন্য এই রায়।

“.. দীর্ঘ প্রতিহিংসার বিষ মনের মধ্যে পুষে রেখেছিলেন। এটি যেন তার প্রতিক্রিয়া।”

বিদেশ থেকে জিয়া এতিমখানা ট্রাস্টের নামে আসা দুই কোটি ১০ লাখ টাকা আত্মসাতের দায়ে সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আখতারুজ্জামান।

দেশজুড়ে কঠোর নিরাপত্তা আর টান টান উত্তেজনার মধ্যে পুরান বকশীবাজারে জনাকীর্ণ আদালতে খালেদার উপস্থিতিতেই এই রায় হয়।

দশ বছর আগে জরুরি অবস্থার মধ্যে দুদকের দায়ের করা এ মামলার ছয় আসামির মধ্যে খালেদা জিয়ার বড় ছেলে বিএনপির জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং মাগুরার সাবেক সাংসদ কাজী সালিমুল হক কামাল, সাবেক মুখ্য সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদের হয়েছে দশ বছর করে কারাদণ্ড।

সেই সঙ্গে তাদের ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার করে জরিমানা করেছেন বিচারক।