পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীর ছেলের সাবেক স্ত্রীর আপিল শুনানি অবকাশের পর

প্রতিবেদক : ল'ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ
প্রকাশিত: ১৩ মার্চ, ২০২২ ৩:৪৩ অপরাহ্ণ
সুপ্রিম কোর্ট

অধস্তন আদালতে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত পাঁচ বছরের কন্যাশিশুকে নিজের হেফাজতে চেয়ে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. মো. শামসুল আলমের ছেলের বিরুদ্ধে তার সাবেক স্ত্রীর করা আপিল শুনানি পিছিয়েছে। অবকাশের পর আগামী ৩ এপ্রিল আবেদনটির ওপর শুনানির দিন ধার্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

বিষয়টি শুনানির জন্য উঠলে শিশুর বাবা মুসফেক আলমের পক্ষে সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আজ রোববার (১৩ মার্চ) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতির আপিল বিভাগের বেঞ্চ এদিন ধার্য করেন।

আদালতে মুসফেক আলমের পক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মেহেদী হাসান চৌধুরী। অন্যদিকে মায়ের পক্ষে ছিলেন আহসানুল করিম, সঙ্গে ছিলেন আবদুল কাইয়ুম ও সাবরিনা জেরিন।

এ বিষয়ে আইনজীবী আবদুল কাইয়ুম বলেন, আজ বাবার পক্ষের আইনজীবী অসুস্থতাজনিত সময়ের আবেদন করেন। পরে আদালত অবকাশের পর ৩ এপ্রিল দিন ঠিক করে দেন।

তিনি বলেন, এর আগে পাঁচ বছরের কন্যাসন্তানকে দেশের বাইরে না নিতে বাবা মুসফেক আলমের ওপর নিষেধাজ্ঞা ও মায়ের জিম্মায় চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছিলেন মা। আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট রুল জারি করেন। পরে রুলের শুনানি শেষে হাইকোর্ট এ রায় দেন।

আইনজীবী আবদুল কাইয়ুম বলেন, রায়ে হাইকোর্ট বাবার কাছে চারদিন ও মায়ের কাছে তিনদিন থাকতে বলেছিলেন। ওই রায়ের বিরুদ্ধে আমরা আপিল করি। আমাদের দাবি হলো, আইন অনুযায়ী মা পুরোপুরি সন্তানকে কাছে পাবে। ওই আপিলের শুনানির জন্য আজকে আপিল বিভাগের তালিকায় আসে। পরে আপিল বিভাগ ৩ এপ্রিল দিন ঠিক করে দেন।

প্রসঙ্গত, আগামী ২০ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটিসহ কোর্টের অবকাশে বন্ধ থাকবে সুপ্রিম কোর্ট। এ সময় নিয়মিত বিচারিক কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ইতোমধ্যে অবকাশে জরুরি বিষয়াদি শুনানি ও নিষ্পত্তির জন্য অবকাশকালীন বেঞ্চ গঠন করে দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি। অবকাশ শেষে আগামী ৩ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্টে ফের নিয়মিত বিচারিক কার্যক্রম পরিচালিত হবে।