আইনজীবীকে মারধর, দুই আসামি কারাগারে

প্রতিবেদক : ল'ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ
প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১১:১৩ পূর্বাহ্ণ
চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, ঢাকা

জমি নিয়ে বিরোধের জেরে আইনজীবীকে মারধরের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে দুই আসামিকে কারাগারে পাঠিয়েছেন ঢাকার একটি আদালত।

ঢাকার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মাশফিকুল ইসলাম রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

কারাগারে যাওয়া দুই আসামি হলেন—রাজধানীর সুত্রাপুর থানার নাসির উদ্দিন সরদার লেনের মৃত মোহাম্মদ হোসেন ভূঁইয়ার ছেলে হাফিজ ভূঁইয়া এবং তার স্ত্রী কুলসুম বেগম।

এদিন আসামি হাফিজ ভূঁইয়া ও তার স্ত্রী কুলসুম বেগম তাদের আইনজীবীর মাধ্যমে আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন।

এ সময় বাদী পক্ষে ঢাকা আইনজীবী সমিতির বর্তমান সভাপতি মাহবুবুর রহমান এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান জামান খান রচিসহ উপস্থিত অনেক আইনজীবী জামিনের বিরোধিতা করেন। রাষ্ট্রপক্ষে অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর মো. আনোয়ারুল কবীর বাবুলও আসামিদের জামিনের বিরোধিতা করেন।

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক আসামিদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলার নথি সূত্রে জানা যায়, আসামি হাফিজ ভূইয়া ও তার লোকজন দীর্ঘদিন ধরে অ্যাডভোকেট মুক্তা বেগমের কেরানীগঞ্জ মডেল থানার পূর্ববন্দ ডাকপাড়া গ্রামের ৪১ শতাংশ বাড়িসহ জমি দখলের চেষ্টা করে আসছিলেন।

এর ধারাবাহিকতায় চলতি বছরের ২২ জুলাই রাত দশটায় আসামি হাফিজ ভূঁইয়া ও তার স্ত্রীর নেতৃত্বে মামলার অন্যান্য আসামিরা বাদীর বাড়িতে হামলা করেন। আসামিরা বাদী ও তার স্বামীকে মারধর করে গুরুতর আহত করেন। এছাড়া বাদীর শ্লীলতাহানি করেন।

আসামি কুলসুমের ইটের আঘাতে বাদীর স্বামীর একটি দাঁত পড়ে যায়। আসামিরা বাদিকে মারধর করে ও গলা চেপে ধরেন। এই ঘটনায় আইনজীবী মুক্তা বেগম বাদী হয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।