এবারও সুপ্রিম কোর্ট বারে বিএনপিপন্থীদের নিরঙ্কুশ বিজয়

প্রতিবেদক : ল'ইয়ার্স ক্লাব বাংলাদেশ
প্রকাশিত: ২৩ মার্চ, ২০১৮ ৯:৫৮ পূর্বাহ্ণ
সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন ও সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকন

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত আইনজীবীরা বড় জয় পেয়েছেন। সভাপতি, সম্পাদক, সিনিয়র সহ-সভাপতি, সহ-সভাপতি, কোষাধ্যক্ষ, সহ সম্পাদক সহ ১৪ জন সদস্য পদে বিএনপি সমর্থিত আইনজীবীরা নির্বাচিত হয়েছেন। অন্যদিকে ১ সহ সম্পাদকসহ ৩ সদস্য পদে জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীরা।

সভাপতি পদে নীল প্যানেলের অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ৫৪ ভোট বেশি পেয়ে আবারও বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ২৩৬৯। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন সাদা প্যানেলের ইউসুফ হোসেন হুমায়ন। তাঁর প্রাপ্ত ভোট সংখ্যা ২৩১৫।

সম্পাদক পদে নীল প্যানেলের ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন ৪৪১ ভোট বেশি পেয়ে টানা ষষ্ঠ বারের মতো বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন সাদা প্যানেলের এস কে মো. মোরসেদ।

বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত নীল প্যানেল থেকে সহ-সভাপতি পদে ড. মো. গোলাম রহমান ভুইয়া, এম গোলাম মোস্তফা, কোষাধ্যক্ষ নাসরিন আক্তার, সহ-সম্পাদক কাজী জয়নুল আবেদীন, সদস্য পদে মাহফুজ বিন ইউসুফ, সাইফুর আলম মাহমুদ, মো. আহসান উল্লাহ ও মোহাম্মদ মেহদী হাসান বিজয়ী হয়েছেন।

অপরদিকে সাদা প্যানেল থেকে সহ-সম্পাদক পদে মোহাম্মদ আবদুর রাজ্জাক, সদস্য ব্যারিস্টার আশরাফুল হাদী, শাহানা পারভিন ও শেখ মোহাম্মদ মাজু মিয়া জয়লাভ করেছেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক এ ওয়াই মশিউজ্জামান।

নির্বাচনের দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার ভোট শেষে রাত ৯টার পর তা গণনা শুরু হয়। দ্বিতীয় দিনে মোট ২২৫৬ আইনজীবী ভোট দেন। তার আগে প্রথম দিনে পড়েছিল দুই হাজার ৬০৯ ভোট। দুইদিনই সকাল ১০টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে এক ঘণ্টার বিরতি দিয়ে চলে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

নির্বাচনে যথারীতি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন আওয়ামী লীগ সমর্থক এবং বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা। ১৪টি পদের বিপরীতে লড়েছেন মোট ৩৩ প্রার্থী। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির ১৪ পদের মধ্যে ৭টি সম্পাদকীয় ও ৭টি নির্বাহী সদস্যের পদ রয়েছে। এসব পদের বিপরীতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ এবং বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল ছাড়াও আলাদা পাঁচজন মিলে মোট ৩৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।