ধর্ষণ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যে তুমুল সমালোচিত ইমরান খান

প্রতিবেদক : বার্তা কক্ষ
প্রকাশিত: ২২ জুন, ২০২১ ১২:২৫ অপরাহ্ণ

পাকিস্তানে ধর্ষণ সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের একটি মন্তব্য নিয়ে তুমুল সমালোচনা শুরু হয়েছে। সম্প্রতি অ্যাক্সিওস নামের একটি সংবাদ সংস্থার সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ধর্ষণের পেছনে মেয়েদের খোলামেলা পোশাককে দায়ী করেছেন ইমরান খান। তার এই মন্তব্যের কঠোর সমালোচনা করেন দেশটির সচেতন নাগরিকেরা। তারা প্রধানমন্ত্রীর এ ধরনের মন্তব্য ধর্ষকদের উৎসাহিত করবে বলে আশঙ্কা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

সাক্ষাৎকারে ইমরান খানকে পাকিস্তানে ধর্ষণ ও যৌনসন্ত্রাস ছড়িয়ে পড়া সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়। জবাবে তিনি বলেন, নারীদের পোশাক স্বল্পতার কারণে পুরুষরা উৎসাহিত হয়। কারণ মানুষ তো আসলে রোবট নয় যে, তার ভাল-মন্দ অনুভূতি থাকবে না। পর্দা করলে নারীরা নিরাপদ থাকবে।

পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে পাকিস্তানের তুলনা করে ইমরান বলেন, আমাদের এখানে নাইট ক্লাব নেই। তরুণদের কোথাও যাওয়ার জায়গা নেই। আমাদের দেশে এখন ধর্ষণ প্রবল রূপ ধারণ করেছে। তাই আমাদের এটা নিয়ে আলোচনা করতে হবে। সমস্যার সমাধান করতে হবে।

নারীদের পোশাক প্রসঙ্গে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, পাতলা ও খোলামেলা পোশাক পুরুষদের প্রলোভিত করে। আমাদের এটা বুঝতে হবে। কারণ সবার ইচ্ছাশক্তি সমান নয় যে, নিজেদের সামাল দেবে।

প্রধানমন্ত্রীর এমন মন্তব্যে ক্ষুব্ধ হয়েছেন দেশের সচেতন নাগরিকেরা। তারা তার এই বক্তব্যকে পক্ষপাতিত্ব বলে অনুযোগ করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বিশেষ করে টু্ইটারে রীতিমতো ঝড় উঠেছে।

মোশাররফ জাইদি নামের একজন লিখেছেন, এসব অর্থহীন কথাবার্তা। সাংবাদিক গারিদাহ ফারুকী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অরুচিকর, হতাশাজনক ও অগ্রহণযোগ্য।

শাহমির সান্নি নামের একজন লিখেছেন, প্রায় প্রতিটি নারীই, যারা ধর্ষিত হয়েছেন, তারা মার্জিত পোশাকই পরেছেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সম্ভবত ধারণাই নেই, তিনি কী বলেছেন। তিনি হয়তো আসল সমস্যাটাই ধরতে পারছেন না।

-সমকাল